advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

বিএনপি মিথ্যা তথ্য দিতে বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করেছিল : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৬ জানুয়ারি ২০২২ ০২:৫৪ পিএম | আপডেট: ২৬ জানুয়ারি ২০২২ ০২:৫৪ পিএম
সংসদে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন
advertisement

বিএনপি-জামায়াত দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই মিথ্যা তথ্য দিতে যুক্তরাষ্ট্রে লবিষ্ট নিয়োগ করেছিল বলে অভিযোগ করেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। আজ বুধবার সকালে সংসদে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

বিএনপি-জামায়াত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাধাগ্রস্ত করতে আটটি লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করেছিল বলে উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির এমপি হারুনুর রশিদ এবং রুমিন ফারহানা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে লবিস্ট নিয়োগ করা নিয়ে সংসদে মিথ্যাচার করেছে। মূলত দেশের অগ্রগতি বন্ধ করে দেওয়ার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করেছে বিএনপি-জামায়াত। সে কারণে তারা আমেরিকাকে দিয়ে চাপ দিচ্ছে। যা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয়।’

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘সরকার লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করেনি, বরং পিয়ার ফার্ম নিয়োগ করেছে। বিএনপি-জামায়াতের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে জবাব দেওয়ার জন্য। দুটির মধ্যে পার্থক্য হলো- একটি কংগ্রেস, সিনেট, ইউএস ডিপার্টমেন্টে গিয়ে লবিং করে, তদবির করে। আমরা সে ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করিনি। আমরা যে প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করেছিলাম এটা লবি ফার্ম কিন্তু তাদের দায়-দায়িত্ব ছিল অপপ্রচার যেগুলো হয়, মিথ্যা তথ্য যেগুলো প্রকাশ হয়, সেগুলো পাবলিককে জানান দেওয়ার জন্য ফ্যাক্টগুলো-সত্যি কথাগুলো তারা বলবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার সহকর্মী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন, বাংলাদেশ বিজিআর নামে একটি প্রতিষ্ঠান ২০১৪-১৫ সালে নিয়োগ দেয় এবং তখন আইসিটি (আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল) বন্ধ করার জন্য যে লবিস্ট নিয়োগ হয়েছিল, তারা বিভিন্ন ধরনের মিথ্য প্রচারণা করছিল তার কারণেই এই বিজিআর নিয়োগ হয়। যাতে তাদের বানোয়াট তথ্যগুলোর বিরুদ্ধে তারা লিখতে পারে।’

বর্তমান সংসদকে অবৈধ বলতে বিএনপির কিছু নেতা যুক্তরাষ্ট্রকে চিঠি দিয়েছে দাবি করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপির এসব তৎপরতা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয়। দেশ ও দলের টাকা নষ্ট করে বাংলাদেশকে রসাতলে পাঠাতে চায় বিএনপি।

আলাপ-আলোচনা ছাড়া র‌্যাবের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞাকে দুঃখজনক উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী মাসে পার্টনারশিপ সংলাপ শুরু হবে। এই সংলাপের পর এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হয়ে যাবে।

আব্দুল মোমেন অভিযোগ করেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে আশ্রয় দিয়ে আমেরিকাকে হুমকির মুখে ফেলেছে- এমন অপপ্রচারের অংশ হিসেবে ১৮টি দেশে চিঠি দিয়েছে বিএনপি। এসব দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকে ধিক্কার জানাই। এটা লজ্জাজনক।

এর আগে মঙ্গলবার ঢাকার মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘরে ‘মানবিক নীতি: এখানে এবং এখন’ শীর্ষক প্রদর্শনী শেষে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছিলেন, বিএনপি বিভিন্ন সময় দেশের ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছিল।