advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পাওয়া গেছে আড়াই লাখ টাকার সেই ল্যাপটপ

চট্টগ্রাম ব্যুরো
১৭ মে ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৭ মে ২০২২ ১২:২০ এএম
advertisement

আড়াই লাখ টাকায় কেনা সেই ল্যাপটপের হদিস পাওয়া গেছে। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সাবেক বিভাগীয় সরঞ্জাম নিয়ন্ত্রক (ডিসিওএস, পাহাড়তলী) পশাল কুমার বদলি হয়ে ঢাকায় গেলে তার বাসায় নিয়ে যান। প্রায় এক বছর ধরে হদিস না থাকা ল্যাপটপটি ঢাকা থেকে গত বৃহস্পতিবার পাঠানো হয়েছে। ওই দিন দৈনিক আমাদের সময়ে ‘আড়াই লাখ টাকার ল্যাপটপটি কোথায়’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল।

advertisement

সংশ্লিষ্টরা জানান, ডিসিওএস পাহাড়তলী মো. সাজ্জাদুল ইসলাম দপ্তরের ল্যাপটপ না পেয়ে খোঁজ নেন। কিন্তু ১১ মাসেও কোনো হদিস মেলেনি। তাই ল্যাপটপগ্রহণকারী সাইফুল ও সাবেক সহকারী সরঞ্জাম নিয়ন্ত্রক আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চিঠি দেন। আনোয়ার অবসরোত্তর ছুটিতে থাকায় বিষয়টির নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তার পেনশন গ্র্যাচুইটি থেকে ৩ লাখ ৮ হাজার ৫৫০ টাকা মঞ্জুর না করতে প্রধান সংস্থাপন কর্মকর্তাকে চিঠি দেন। ল্যাপটপ বুঝে পাওয়ার পর চিটি দুটি বাতিল করেছেন।

অবশ্য পাঠানো ল্যাপটপটি নতুন কিনে দেওয়া হয়েছে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। মূলত পলাশ কুমার, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সখিনা এন্টারপ্রাইজ ও বিভাগের একজন কর্মকর্তা মিলে কাগজকলমে ল্যাপটপ ক্রয় দেখানো হলেও না কিনে টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

গত ১২ মে থেকে আড়াই মাসের প্রশিক্ষণ ছুটিতে গেছেন সাজ্জাদুল ইসলাম। তার দায়িত্বে রয়েছেন মো. মারুফ শিকদার। তিনি আমাদের সময়কে বলেন, পলাশ স্যার বদলি হওয়ায় তিনি ল্যাপটপ নিয়েছিলেন। সেটি গত বৃহস্পতিবার পাঠিয়ে দিয়েছেন।

advertisement