advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জলপাইগুড়ি ট্রেন চালু হচ্ছে ১ জুন

তাওহীদুল ইসলাম
১৭ মে ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৭ মে ২০২২ ০১:১৩ এএম
advertisement

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার বন্ধ হওয়া ট্রেন সার্ভিস চালু হতে পারে আগামী ২৯ মে। এদিন থেকে মৈত্রী ও বন্ধন এক্সপ্রেস চালু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আর ১ জুন থেকে চালু হবে নতুন রুট ঢাকা থেকে নিউ জলপাইগুড়ি। ট্রেনটির নাম মিতালী এক্সপ্রেস।

advertisement

করোনার কারণে বাংলাদেশ ও ভারত রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল। সম্প্রতি ভারতের হাইকমিশনের পক্ষ থেকে দুদেশের যান চলাচলের ব্যাপারে ইতিবাচক মতামত এসেছে। মৈত্রী এক্সপ্রেস ও বন্ধন এক্সপ্রেস বিদ্যমান ট্রেন সার্ভিস। আর মিতালী এক্সপ্রেস ট্রেনটি নতুন করে চালু হতে যাচ্ছে।

জানা গেছে, ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন

থেকে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত চলবে মিতালী এক্সপ্রেস। নিউ জলপাইগুড়ি থেকে ছাড়বে সোম ও বৃহস্পতিবার। আর ঢাকা থেকে ছাড়বে মঙ্গল ও শুক্রবার। যাত্রাপথে সময় লাগবে নয় ঘণ্টা। এই দীর্ঘপথে থাকছে উভয় দেশের ১৫টি স্টেশন। তবে কোনো স্টেশনে ট্রেনটি দাঁড়াবে না। মিতালি এক্সপ্রেসে এসি চেয়ারের ভাড়া ২৭০৫ টাকা, এসি সিটের ভাড়া ৩৮০৫ টাকা আর এসি বার্থের ভাড়া ৪৯০৫ টাকা। আর মৈত্রী এক্সপ্রেসে ভাড়া এসি চেয়ার ২৫০৫ টাকা, এসি সিট ৩৫০৫ টাকা। বন্ধন এক্সপ্রেসে এসি চেয়ারের জন্য ২০০৫ টাকা ও এসি সিটের ভাড়া ১৫০৫ টাকা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) সরদার সাহাদাত আলী আমাদের সময়কে বলেন, দুদেশের ট্রেন সার্ভিস চালু নিয়ে রেলপথ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ভারতীয় হাইকমিশন রেলওয়ে বোর্ডসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে। আশা করি শিগগির হয়ে যাবে।

জানা গেছে, ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের দিন প্রথম যাত্রীবাহী রেল পরিসেবা চালু হয়েছিল কলকাতা-ঢাকার মধ্যে। এর নাম ‘মৈত্রী এক্সপ্রেস’ ট্রেন। এরপর ২০১৭ সালের ৯ নভেম্বর দ্বিতীয় রেল পরিসেবা ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ চালু হয়েছে কলকাতার সঙ্গে বাংলাদেশে খুলনার মধ্যে।

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ট্রেন সার্ভিস চালুর উদ্দেশ্যে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনসহ রেলের কর্মকর্তারা ২৮ মে ভারত সফর যেতে পারেন। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সারসংক্ষেপ পাঠানো হয়েছে। তবে বিদেশ সফরের ব্যাপারে নিরুৎসাহী করে সরকারের নতুন প্রজ্ঞাপনের পর আসন্ন ভারত সফরের অনুমোদন নিয়ে কর্মকর্তাদের মধ্যে সংশয় রয়েছে। সেক্ষেত্রে ভার্চুয়ালি পতাকা উড়িয়ে মিতালী এক্সপ্রেস উদ্বোধন করা লাগতে পারে। তার আগে মৈত্রী ও বন্ধন এক্সপ্রেস ২৯ মে একই দিনে চালুর কথা রয়েছে।

advertisement