advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

৫৯ হাজার টাকা খরচ বাড়ল হজের

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৭ মে ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৭ মে ২০২২ ০১:০৫ এএম
advertisement

ফ্লাইটের ঠিক ১০ দিন আগে হজের খরচ আরও ৫৯ হাজার টাকা বাড়ানো হয়েছে। সরকারি কিংবা বেসরকারি- এই বাড়তি খরচ গুনতে হবে উভয় ব্যবস্থাপনাতেই। সৌদি আরব অংশের ‘খরচ বেড়ে যাওয়ায়’ এই বাড়তি টাকা দিতে হবে বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।

advertisement

৫৯ হাজার টাকা খরচ বাড়ার ফলে সরকারি ব্যবস্থাপনার প্যাকেজ ১-এর খরচ বেড়ে দাঁড়াবে ৫ লাখ ৮৬ হাজার ৩৪০ টাকা। প্যাকেজ ২-এ খরচ পড়বে জনপ্রতি ৫ লাখ ২১ হাজার ১৫০ টাকা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, আগের ঘোষণায় সৌদি আরব অংশের মূল্য ছিল

অনুমাননির্ভর। এখন সৌদি সরকার তাদের অংশ জানিয়েছে। এ কারণে হজের মূল্য সমন্বয় করতে হয়েছে। করোনা সংক্রমণ কমে আসায় দুবছর বাদে এবার বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪ হাজার এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন হজে যেতে পারবেন।

গত ১১ মে সচিবালয়ে হজ ব্যবস্থাপনাসংক্রান্ত নির্বাহী কমিটির সভা শেষে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান সাংবাদিকের বলেছিলেন, সরকারিভাবে হজে যেতে প্রথম প্যাকেজে খরচ হবে ৫ লাখ ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা। আর দ্বিতীয় প্যাকেজের খরচ ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৬২ হাজার ১৫০ টাকা।

এ ছাড়া বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের জন্য জনপ্রতি খরচ ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৭৫০ টাকা ঠিক করা হয়েছিল। বলা হয়েছিল, কোরবানির জন্য প্রত্যেক হজযাত্রীকে ৪১০ সৌদি রিয়ালের সমপরিমাণ ১৯ হাজার ৬৮৩ টাকা আলাদাভাবে সঙ্গে নিতে হবে।

এর আগে মহামারীর কারণে ২০২০ সালে বাংলাদেশ থেকে কেউ হজে যেতে পারেননি। ওই বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় তিনটি হজ প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। প্রথম প্যাকেজে ৪ লাখ ২৫ হাজার, দ্বিতীয়টিতে তিন লাখ ৬০ হাজার ও প্যাকেজ ৩-এ তিন লাখ ১৫ হাজার টাকা খরচ ধরা হয়। আর বেসরকারি প্যাকেজে তিন লাখ ৫৮ হাজার টাকা খরচ নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এবার ৮ জুলাই হজ হতে পারে। বাংলাদেশ থেকে এবার হজ ফ্লাইট ৩১ মে শুরুর পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু সৌদি আরবে প্রস্তুতি শেষ না হওয়ায় ৫ জুন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

advertisement