advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন
প্রার্থিতা প্রত্যাহার ইমরানের, মেয়র পদে লড়ছেন ৫ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা
২৭ মে ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৭ মে ২০২২ ০১:০৫ এএম
advertisement

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময়ে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাসুদ পারভেজ খান ইমরান। গতকাল বৃহস্পতিবার মনোনয়পত্র প্রত্যাহারের ঠিক শেষ সময়ে তিনি নিজে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। এদিকে, আজ শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দের পর আনুষ্ঠানিক প্রচারে নামবে আওয়ামী লীগ। প্রচারের প্রথম দিন বাদ আসর মিলাদ মাহফিল শেষে নগরীর সব ওয়ার্ডে নৌকার সমর্থনে মিছিলের কর্মসূচি রয়েছে। ১৫ জুন হবে ভোট। মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ সময়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে আলোচনার ঝড় তুুলেছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য এবং কুমিল্লা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ইমরান। গতকাল মনোনয়ন প্রত্যাহারের ঘোষণাকালে তার সমর্থকরা ‘না’ ‘না’ বলে বিরোধিতা করেন। এর আগে বিকাল ৩টায় সংবাদ সম্মেলন করেন ইমরান। কুমিল্লা চেম্বার অব কমার্সের অডিটরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে ইমরান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম। আমি নিজের ইচ্ছায় নির্বাচনে আসিনি। আমার নেতাকর্মীদের কারণে ও কুমিল্লার ২৭টি ওয়ার্ডের মানুষের দিকে চেয়ে নির্বাচনে এসেছি। তারা অতিষ্ঠ হয়ে গেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্যের লোকদের নির্যাতনে। তিনি আরও বলেন,

advertisement

কুমিল্লায় এখন যে পরিবেশ বিরাজ করছে এতে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করা কঠিন হয়ে গেছে। আমাদের কারণেই এখন আওয়ামী লীগ টিকে আছে। কুমিল্লায় আওয়ামী লীগ ও কুমিল্লার মানুষকে বাঁচাতে হলে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ জরুরি। এ সময় তিনি নেতাকর্মীদের নৌকার পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানান।

আক্ষেপ করে তিনি বলেন, যারা নৌকা প্রতীক পেয়েছেন তারা আমাদের কোনো নেতাকর্মীকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে রাখেননি। আমরা স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, তারা আমাকে ডাকুক বা না ডাকুক আমরা নৌকার পক্ষেই মাঠে আছি।

মেয়র পদে লড়ছেন ৫ জন : সিটি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন ১৬৪ জন। যাচাই বাছাই এবং আপিল প্রক্রিয়া শেষে ৫ মেয়র পদপ্রার্থীসহ ১৫৯ জন প্রার্থী বৈধ ঘোষিত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩৮ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর। ১১৬ জন সাধারণ কাউন্সিলর।

মাসুদ পারভেজ খান ইমরান মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করায় মেয়র পদে এখন পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের আরফানুল হক রিফাত, ইসলামী আন্দোলনের রাশেদুল ইসলাম, স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থিতা করছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুল হক সাক্কু, কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নিজাম উদ্দিন এবং কুমিল্লা নাগরিক ফোরামের সভাপতি কামরুল হাসান বাবুল।

সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারকারীরা হলেন ২নং ওয়ার্ডের বৃষ্টি আক্তার ও ৪নং ওয়ার্ডের নাসরীন সুলতানা। সাধারণ ওয়ার্ডের প্রত্যাহারকারীরা হলেন- ৩নং ওয়ার্ডে মো. শাহজাহান, ৪নং ওয়ার্ডে মোসলেম উদ্দিন, ৭নং ওয়ার্ডে ফরহাদ হোসেন, ২১নং ওয়ার্ডে মাহবুবুর রশিদ, ২২নং ওয়ার্ডে বিজয় রতন দেবনাথ, ২৪নং ওয়ার্ডে আবদুল মতিন খান, ২৬নং ওয়ার্ডে জহিরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর হোসেন ও গোলাম সারওয়ার কাউসার এবং ২৭নং ওয়ার্ডের ওসমান গণি।

advertisement