advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মহাকাশ স্টেশনে গিয়ে টিকটক বানালেন নভোচারী!

অনলাইন ডেস্ক
১৩ জুন ২০২২ ১০:০২ এএম | আপডেট: ১৩ জুন ২০২২ ১০:০৬ এএম
সামান্থা ক্রিস্তোফোরেত্তি
advertisement

ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটককে এবার ভিন্নমাত্রায় নিয়ে গেলেন ইউরোপের নভোচারী সামান্থা ক্রিস্তোফোরেত্তি। প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে (আইএসএস) টিকটকের জন্য ভিডিও তৈরি করেছেন তিনি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, সামান্থা ইতালির প্রথম নারী নভোচারী। ২০১৪ সালে প্রথম মহাকাশে ভ্রমণ করেন তিনি। সেবার আইএসএসে একজন নারী হিসেবে টানা ১৯৯ দিন কাটিয়ে করেন রেকর্ডও। ২০১৭-২০১৯ সালে সেই রেকর্ড ভেঙেও যায়। তবে এবার নতুন এক রেকর্ড করলেন তিনি।

advertisement

চলতি বছরের এপ্রিলে দ্বিতীয়বারের মতো মহাকাশভ্রমণে গিয়েছেন সামান্থা। সেখানে ধারণ করা ভিডিও পোস্ট করছেন টিকটকে। এসব ভিডিও দেখছেন কোটি কোটি মানুষ। এর জেরেই নভোচারী সামান্থা এখন টিকটক তারকাও বনে গেছেন।

মহাকাশে সামান্থা এই টিকটক ভিডিও করেছেন বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনি দ্য হিচহাইকারস গাইড টু দ্য গ্যালাক্সির লেখক ডগলাস অ্যাডামসের স্মরণে। সেখানে তিনি দেখিয়েছেন, মহাকাশে ওজনহীন অবস্থায় একটি ভেজা তোয়ালে কেমন আচরণ করে। ভিডিওটি দেখা হয়েছে ১৭ কোটি বারের বেশি।

পৃথিবী থেকে একটি মহাকাশযান উৎক্ষেপণের পর তা আইএসএসে স্থাপন করা পর্যন্ত বিস্তারিত দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে সামান্থার অপর একটি টিকটক ভিডিওতে। এই ভিডিও এখন পর্যন্ত দেখা হয়েছে ১২ লাখ বারের বেশি।

তবে এটা ভাবলে চলবে না যে মহাকাশে গিয়ে সামান্থা শুধু টিকটক ভিডিও করছেন। প্রতিদিন মহাকাশ স্টেশনের রক্ষণাবেক্ষণ ও গবেষণার কাজে ১২ ঘণ্টা করে সময় দিতে হচ্ছে তাকে। একটি গবেষণার বিষয় হলো মহাকাশযানে খুবই কম মহাকর্ষ বলের মধ্যে কীভাবে ডিম্বাশয়ের কোষগুলো কাজ করে, তা খতিয়ে দেখা। গবেষণাটি একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। তার বিশ্বাস, এই গবেষণার সুফল পাবে পৃথিবীর মানুষ।

advertisement