advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

‘সব ফরম্যাটে খেলতে চাই’

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৩ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ জুন ২০২২ ১১:৩৮ এএম
advertisement

জাতীয় দল থেকে হারিয়ে যেতে বসেছিলেন তাসকিন আহমেদ। তবে করোনা মহামারীকালে কঠোর পরিশ্রম করে আবার জাতীয় দলে ফিরেছেন এই পেসার। তিন ফরম্যাটেই জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার তিনি। বিসিবির সবশেষ কেন্দ্রীয় চুক্তির তিন ফরম্যাটেই তাকে রাখা হয়েছে। তবে ইনজুরি নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। এমনিতেই পেসারদের ইনজুরিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাসকিনকে এখন নিয়মিত তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটেই খেলতে হচ্ছে। বেশি ম্যাচ খেলার কারণে তার ইনজুরিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও বাড়ছে। সবশেষ ইনজুরির কারণে সাউথ আফ্রিকা সফরের দ্বিতীয় টেস্ট, দেশের মাটিতে শ্রীলংকা সিরিজ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের টেস্টে খেলা হচ্ছে না এই পেসারের। তবে উইন্ডিজ সফরের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলে আছেন তিনি। আগামীকাল ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন তাসকিন। গতকাল এই পেসার জানান, তিন ফরম্যাটেই তিনি খেলতে চান। তাসকিন বলেন, ‘ ‘আমি সব ফরম্যাটে খেলতে চাই। যদি কখনো দেখি পারছি না, তখন বলব। আমার স্বপ্ন আসলে ওয়ার্ল্ডক্লাস হওয়া।’

পিঠের ইনজুরির কারণে সাউথ আফ্রিকা সফরের দ্বিতীয় টেস্ট থেকে ছিটকে যান তাসকিন। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে মিরপুরে বোলিং অনুশীলন করার সময় নতুন করে আবার ইনজুরিতে পড়েছিলেন এই পেসার। হঠাৎ করেই কোমরে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। এ কারণে তাকে তিন দিন বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী। বিশ্রাম শেষে আবার বোলিংয়ে ফিরেছেন তাসকিন। এখন কোমরে আর ব্যথা নেই। তাসকিন জানান, ইনজুরি যে কোনো মুহূর্তে হতে পারে। তিনি বলেন, ‘ভয় পেয়ে লাভ নেই। ইনজুরি হতেই পারে। যখন খেলতে নামব শতভাগ দিয়েই চেষ্টা করব। ইনজুরি হলে রিহ্যাব করে আবার আসব। এখন প্রশ্ন যদি এমন হয়- আপনি বারবার কেন ইনজুড হন, তা হলে তো এটাও বলতে পারেন মুক্তিযোদ্ধারা কেন শহীদ হয়েছেন? দেশের জন্য খেলতে গিয়ে ইনজুড হতেই পারি।’

ইনজুরির কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের টেস্ট সিরিজে তাসকিন নেই। মোস্তাফিজ, এবাদত ও খালেদ ভালো বোলিং করেছেন। তাসকিন থাকলে তিনিই পেস আক্রমণকে নেতৃত্ব দিতেন। অ্যান্টিগা টেস্ট শেষে অধিনায়ক সাকিব বলেছিলেন, তাসকিনকে একটা বড় কৃতিত্ব দিতে হবে। শেষ দুই-তিন বছরে ও দেখিয়ে দিয়েছে, কীভাবে আসলে একজন পেস বোলার বড় হতে পারে কিংবা সামনের দিকে এগোতে পারে এবং ব্যাকরণগত কীভাবে উন্নতি করতে পারে। আমার মনে হয়, তাকে অনেকেই অনুসরণ করে। আমাদের পেস বোলারদের ভালো করার পেছনে এটা একটা বড় কারণ।’ বিশ^সেরা অলরাউন্ডারের মুখ থেকে নিজের এমন প্রশংসা শুনে উচ্ছ্বসিত তাসকিন। তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে খুবই ভালো লেগেছে আমার। আরও অনুপ্রাণিত করেছে আমাকে যে, আমি আরও ভালো করতে পারব।’