advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শেখ হাসিনার সাহসী সিদ্ধান্তের ফল পদ্মা সেতু

বিক্রম কে দোরাইস্বামী, ভারতীয় হাইকমিশনার

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
২৩ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ জুন ২০২২ ১২:১৯ এএম
বিক্রম কে দোরাইস্বামী। ফাইল ছবি
advertisement

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কে দোরাইস্বামী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠিন কিন্তু সাহসী সিদ্ধান্তের ফলে দীর্ঘতম সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশের পক্ষে নিজস্ব অর্থায়নে সেতুটি নির্মাণ করা কঠিন কাজ ছিল এবং শেখ হাসিনার অব্যাহত ও দৃঢ়সাহসী সিদ্ধান্তের জন্য এই অর্জন সম্ভব হয়েছে।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভারতীয় হাইকমিশনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

advertisement

দোরাইস্বামী বাংলাদেশের কৃতিত্বের জন্য অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, পদ্মা সেতু একই সঙ্গে ঐতিহ্যবাহী বাংলার সংস্কৃতির সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত। আমরা সবাই বাঙালি সংস্কৃতির বিষয়ে এ কথা জানি- এই পাড় ও ওই পাড় (নদীর দুই পাড়)। তাই পদ্মা বাংলা ভূমির দুটি ‘পাড়’ (দুই পাড়) থাকার অর্থই প্রকাশ করে। একটি বড় প্রকল্প হওয়া সত্ত্বেও পদ্মা সেতু শুধু ইট ও স্টিলের নিরিখে একটি বিশাল কাঠামো নয়; বরং এটি হচ্ছে প্রমত্তা পদ্মা নদীর ওপারের মানুষের সংস্কৃতি ও আবেগের প্রতীকী সংযোগকারী।

তিনি আরও বলেন, এটি ভারতের বাঙালিদের জন্যও একটি শুভক্ষণ। যখন বাংলাদেশ সরকার ২০১০ সালের প্রথম দিকে বিদেশি ঋণ নিয়ে এই কাঠামো নির্মাণের পরিকল্পনা করেছিল, তখন আমরা (ভারত) ছিলাম প্রথম দেশ যে এই প্রকল্পের সহায়তা দেওয়ার জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। কিন্তু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী যখন নিজস্ব (অভ্যন্তরীণ) অর্থায়নে সেতুটি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়, তখন ভারত আবারও এই সিদ্ধান্তের প্রতি জোরালো সমর্থন জানায়।

advertisement