advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

টাঙ্গাইলে বিশুদ্ধ পানি সংকটে বানভাসিরা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
২৩ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২২ জুন ২০২২ ১১:৪৬ পিএম
advertisement

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে টাঙ্গাইলের যমুনা নদীতে প্রতিদিনই পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে সদর, কালিহাতী, ভুয়াপুর, গোপালপুর, বাসাইল ও নাগরপুর উপজেলায় নিম্নাঞ্চলের বানবাসি মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এলাকার নলকূপগুলো ডুবে যাওয়ায় বিশুদ্ধ পানির সংকটে পড়েছেন তারা। গতকাল বুধবার সকালে সরেজমিন দেখা যায়, ভুয়াপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া, গাবসারা ইউনিয়নের রামপুর, চরচন্দনী ও বিহারী এলাকায় ঘরবাড়িতে পানি উঠেছে। অগভীর নলকূপগুলো তলিয়ে গেছে। এতে বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

advertisement

বিহারী গ্রামের মতি ঘোষ নামে এক ব্যক্তি বলেন, আমাদের গ্রামে বেশিরভাগ বাড়িঘরে এখন পানি। নলকূপগুলো তলিয়ে গেছে। আমরা এখন খাবার পানি পাচ্ছি না। এ ছাড়াও শিশুদের নিয়ে পড়েছি বিপদে। তাদের যদি শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানিটাও দিতে পারতাম, তাহলে নানা ধরনের রোগ জীবাণু থেকে রক্ষা করা যাবে।

কালিহাতী উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের মানুষ দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। পরিষদের পক্ষ থেকে বানভাসি মানুষকে ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে।

টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম জানান, বন্যার পানি ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে পাউবো সতর্ক রয়েছে।

টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি জানান, জেলায় বানভাসি মানুষের জন্য পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বন্যা প্লাবিত এলাকায় ইতোপূর্বেও ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। পর্যাপ্ত পরিমাণে ত্রাণ রয়েছে এবং ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত থাকবে।

advertisement