advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কুড়িগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ড ৬ জেএমবির

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুড়িগ্রাম
২৪ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ জুন ২০২২ ১১:৩৬ পিএম
advertisement

কুড়িগ্রামে মুসলিম থেকে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যা মামলার রায় দীর্ঘ ৬ বছর পর গতকাল ঘোষণা করেছেন আদালত। রায়ে ৬ জেএমবি সদস্যের মৃত্যুদ- দিয়েছেন আদালত। কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আবদুল মান্নান এ রায় দেন।

advertisement

রাষ্ট্রপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এসএম আব্রাহাম লিংকন এবং আসামির পক্ষে লিগ্যাল এইড নিয়োজিত অ্যাডভোকেট হুমায়ূন কবীর। মামলার ৭ আসামির মধ্যে ৫ আসামি রাজীব গান্ধী, রিয়াজুল ইসলাম

ওরফে মেহেদী, ফিরোজ হাসান ওরফে মোখলেছ, মাহাবুব হাসান মিলন ও আবু নাছির ওরফে রুবেলকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। এ ছাড়া আসামি গোলাম রব্বানী পলাতক রয়েছে এবং মামলা চলাকালীন আর এক আসামি সাদ্দাম হোসেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ায় মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী ২০১৬ সালের ২২ মার্চ সকাল ৭টার দিকে কুড়িগ্রাম জেলা শহরের গড়ের পাড় এলাকায় প্রাতঃভ্রমণে বের হয়েছিলেন। এ সময় ওতপেতে থাকা জঙ্গিরা তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। পরে জঙ্গিরা ভিতিকর অবস্থা তৈরি করতে বিভিন্ন স্থানে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়।

ওই দিনই নিহতের ছেলে রাহুল আমিন আজাদ বাদী হয়ে সদর থানায় হত্যা মামলা এবং বিস্ফোরকদ্রব্য আইনে দুটি মামলা করেন।

advertisement