advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

চবিতে শাটল ট্রেনের চালককে ‘অপহরণ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
১ আগস্ট ২০২২ ১২:৩৫ পিএম | আপডেট: ১ আগস্ট ২০২২ ০৪:০১ পিএম
শাটল ট্রেন। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) রুটে চলাচলকারী ১৩১ নম্বর শাটল ট্রেনের দায়িত্বরত চালক (লোকোমাস্টার), তার সহকারী ও গার্ডকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। আজ সোমবার সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মজিবুর রহমান।

অপহৃত তিনজন হলেন-চালক আবু তাহের ও তার সহকারী পুণ্য জৌতি চাকমা ও গার্ড এমদাদুল হক।

advertisement

রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে, আজ সকাল ৮টার দিকে চট্টগ্রাম পুরাতন (বটতলী) স্টেশন থেকে ছেড়ে যায় ১৩১ নম্বর শাটল ট্রেনটি। এটি ঝাউতলা এলাকায় পৌঁছালে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকারে কয়েকজন যুবক এসে ট্রেনের গার্ড, চালক ও তার সহকারীকে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর থেকে ওই রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

মো. মজিবুর রহমান বলেন, ‌‘ট্রেনের ক্রু অপহরণের বিষয়টি আমরা প্রশাসনকে জানিয়েছি। তাদের মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত ওই রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে।’

আজ বেলা পৌনে ১১টা পর্যন্ত শাটল ট্রেনের চালকসহ অপহৃতদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলেও জানান বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক। 

২০১৯ সালের পর গতকাল রোববার রাত সাড়ে ১২টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ৩৭৬ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য এ কমিটির অনুমোদন দেন।

এর পরপরই ঘোষিত কমিটিতে পদবাণিজ্য ও অছাত্রদের রাখার অভিযোগে এনে ফটকে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ-অবরোধ করছেন পদবঞ্চিত ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। এর ফলে আজ ক্যাম্পাস থেকে ছেড়ে যায়নি কোনো শিক্ষক বাস ও শাটল ট্রেন।

পদবঞ্চিত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানান, যতক্ষণ পর্যন্ত তাদের দাবি আদায় না হবে অনির্দিষ্টকালের জন্য তাদের এই অবরোধ চলবে।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘সকালে ঝাউতলা স্টেশন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেনের লোকোমাস্টারকে অপহরণ করা হয়েছে বলে জেনেছি। কমিটি নিয়েই এই ঘটনা ঘটেছে। আন্দোলনরতরা তাদের দাবি দাওয়ার জন্য লোকমাস্টারকে নিয়ে গেছে। আমরা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলছি।’

advertisement