advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম গোমস্তাপুরের মিটুল

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি
৩ আগস্ট ২০২২ ০১:৪৭ পিএম | আপডেট: ৩ আগস্ট ২০২২ ০১:৫৫ পিএম
মো. মিটুল আলী।
advertisement

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের মো. মিটুল আলী। এই ইউনিটে ৭২ হাজার ৪১০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। তাদের মধ্যে ৯২.৭৫ নম্বর পেয়ে তিনি প্রথম হন। মিটুল উপজেলার গোমস্তাপুর ইউনিয়নের নয়াদিয়াড়ী গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে।

প্রথম হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় মিটুল আলী বলেন, ‘আমি দরিদ্র পরিবারের সন্তান। আমার আব্বা অন্যের জমিতে কৃষিকাজ করেন। খুব কষ্ট করে আমাকে লেখাপড়া করিয়েছেন। প্রায় সময় আব্বার সঙ্গে আমি কৃষিকাজ করি। আমাকে সংগ্রাম করে পড়ালেখা করতে হয়েছে। আমার মা একজন গৃহিণী। তিনি আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। খুব ইচ্ছে ছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যলয়ে পড়ালেখা করার। আমার এ স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করার মতো না।’

advertisement

তিনি আরও বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েটে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছি। আমার লক্ষ্য ইঞ্জিনিয়ার হওয়ায়। কিন্তু সাবজেক্ট চয়েস না হওয়ায় ডাক্তারি পড়বো বলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়েছি।’

মিটুলের বাবা আব্দুল করিম বলেন, আমার ছেলেটা ছোট থেকেই খুব মেধাবী। তাকে লেখাপড়ার জন্য কখনো বলতে হয়নি। আমার চার ছেলে ও এক মেয়ে। তার মধ্যে মিটুল তৃতীয়।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মূর্খ মানুষ। তাই অন্য সন্তানদের তেমন লেখাপড়া করাতে পারিনি। এখন শুধু স্বপ্ন দেখি মিটুল বড় হয়ে একটা চাকরি করে সমাজের কাছে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।’

নয়াদিয়াড়ী হাজী ইয়াকুব আলী মণ্ডল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাজাহান আলী বলেন, মিটুল ছোট থেকে ভালো ছাত্র ছিল। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ‘সি’ ইউনিটে প্রথম হওয়ায় আমরা শিক্ষকরাও আনন্দিত।

মিটুল ২০১৯ সালে গোমস্তাপুর নয়াদিয়াড়ী হাজী ইয়াকুব আলী মণ্ডল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০২১ সালে রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। উভয় পরীক্ষায় তিনি জিপিএ-৫ পান।

advertisement