advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

লেবাননে অপকর্মে বাংলাদেশিরা, সর্তক করল দূতাবাস

বাবু সাহা,লেবানন
৪ আগস্ট ২০২২ ০৪:০৪ পিএম | আপডেট: ৪ আগস্ট ২০২২ ০৫:৪৮ পিএম
বাংলাদেশ দূতাবাস, লেবানন। পুরোনো ছবি
advertisement

লেবাননে বিগত কয়েক বছর ধরে চলমান অর্থনৈতিক মন্দায় দেশটিতে আইন-কানুন অনেকটাই শিথিল করা হয়েছে। এ সুযোগে দেশটিতে বড়েই চলেছে কিছু প্রবাসী বাংলাদেশিদের অপরাধ প্রবনতা। মদ, জুয়া, অপহরণ ও নেশা জাতীয় দ্রব্যসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ছে তারা। এ অবস্থায় হাতেগোনা কয়েকজন বাংলাদেশির নানাবিধ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে দেশটিতে হুমকির মুখে পড়েছে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি।

লেবাননে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস গত সোমবার রাতে স্থানীয় বাংলাদেশিদের সতর্ক করে তাদের ফেসবুকে একটি নোটিশ প্রকাশ করে। নোটিশে বলা হয়, কতিপয় বাংলাদেশির বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অসামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পাওয়া গিয়েছে। এছাড়াও দেশের হাইছিলুম, আশরাফিয়ে, মুকাল্লেস, মনসুরিয়ে, নাভাসহ বিভিন্ন এলাকায় অবাধে জুয়ার আসর, নাইট ক্লাবে গিয়ে অসামাজিক কর্মকাণ্ড ও অপহরনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িতদের সতর্ক করে ভবিষ্যতে যথাযথ ব্যবস্থা নিবে বলে জানিয়েছে দূতাবাস।

advertisement

উল্লেখ্য দেশটিতে বিগত কয়েকবছর ধরে স্থানীয় কয়েকটি নাইটক্লাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটকের নামে কতিপয় বাংলাদেশির উশৃঙ্খলতা চরমে পৌঁছেছে। যেখানে সেখানে টিকটকের নামে অশ্লীলতা, বিভিন্ন এলাকায় অবাধে জুয়া আসরের নামে সাধারণ বাংলাদেশিদের নিঃস্ব, নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন, আধিপত্য বিস্তার, হত্যা, অপহরণ করে অর্থ আদায় ও নারীঘটিত বিভিন্ন অনৈতিক কাজ বেড়েই চলছে।

এ দিকে গত সোমবার সাবিনা ইয়াসমিন নামে এক নারকর্মীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে ৬ বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করেছে স্থানীয় পুলিশ। এর আগেও বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে দূতাবাসের তথ্যানুযায়ী প্রায় ৩১ জন বাংলাদেশিকে স্থানীয় জেলে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়। এছাড়া কিছুদিন আগে দাওড়া এলাকায় প্রকাশ্যে দুদল বাংলাদেশির মধ্যে ধাওয়া পাল্টা হয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা।

এ বিষয়ে দূতাবাসের প্রথম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘প্রবাসে কতিপয় বাংলাদেশিদের এ ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড দেশের ভাবমূর্তি নষ্টসহ সাধারণ প্রবাসীদের কাজের উপর বিরুপ প্রভাব পড়ে। আমরা তাদেরকে সতর্ক করে নোটিশ করেছি। তারপরও যদি তারা নিজেদের সংশোধন না করে, তাহলে দূতাবাস দেশ ও সাধারণ বাংলাদেশিদের স্বার্থে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।’

লেবানন প্রবাসী রাব্বুল শেখ জানান, যে সব জায়গায় জুয়া ও টিকটকের নামে অসামাজিক কার্যকলাপ চলে সেই এলাকাগুলোতে জড়িত বাংলাদেশিদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে দূতাবাসের দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।

বাংলাদেশি মিন্টু মাল বলেন, ‘অল্প কয়েকজন বাংলাদেশির কারণে লেবাননে আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। এ বিষয়ে দূতাবাসের জোরাল পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।’

দূতাবাসের নোটিশের পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশিরা দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানিয়ে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

advertisement