advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বঙ্গবন্ধুর খুনিরা জীবিত থাকলে খুঁজে বের করা হবে : আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৫ আগস্ট ২০২২ ০২:২৭ পিএম | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০২২ ০৫:১৪ পিএম
সংগৃহীত ছবি
advertisement

আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারকালীন চারজনকে ধরা গেছে। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসবে শুনে অন্যরা বিদেশে পালিয়ে গেছে। ২০০৭ সালে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বঙ্গবন্ধুর খুনি মহিউদ্দিনকে ফেরত দেওয়ার পর সর্বোচ্চ আদালতে আদেশের পরিপ্রক্ষিতে রায় কার্যকর করা হয়।’

আজ সোমবার সকালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

advertisement 3

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘খুনি আজিজ বিদেশে মারা গেছেন। এস বি এম নূর চৌধুরী ও এম রাশেদ চৌধুরীকে যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। তাদের দেশে আনতে আলোচনা হচ্ছে। আমার বিশ্বাস আমরা তাকে আনতে পারবো। এছাড়া খুনি ডালিম, রশিদ ও মুসলেহউদ্দিন কোথায় আছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে জীবিত থাকলে তাদের খুঁজে বের করা হবে। ইঁদুরের গর্তেও লুকিয়ে থাকতে পারবে না।’

advertisement 4

আক্ষেপ করে আনিসুল হক বলেন, ‘১৫ আগস্ট বিএনপি নেত্রী যদি মিথ্যা জন্মদিন পালন না করে এই খুনিদের ফিরিয়ে আনতে একটু সচেষ্ট হতেন, আমাদের জন্য কাজটা অনেক সহজ হতো। সেটা না করে বিএনপি সরকার, এরশাদ সরকার এই খুনিদের বিদেশে চাকরি দিয়েছে। আবার পৃষ্ঠপোষকতা করেছে। পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দিয়ে আজকে আমাদের জন্য পথটা অনেক কঠিন করেছে।’

দেশের পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সারাবিশ্বে কঠিন সময় চলছে। বাংলাদেশের মানুষের কষ্ট শেখ হাসিনা বোঝেন, আমি বুঝি, আমরা বুঝি। সেজন্য বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা কষ্ট লাঘবের জন্য শেখ হাসিনার সেবামূলক সরকারের সদস্যরা আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুধু চালের দাম বাড়েনি; তেলের দাম, ডিজেলের দাম বাড়েনি। বাড়িয়ে কিন্তু আমরা ভর্তুকি দিচ্ছি। অন্তত আওয়ামী লীগ সরকার চায় না, শেখ হাসিনার সরকার চায় না আপনাদের কষ্ট দিতে। আমরা বাধ্য হয়েই তেলের দাম বাড়িয়েছি। একটা লঞ্চের মাঝে যখন ঝড় ওঠে তার মাঝি বোঝে যে যাত্রীরা ভীত। তার যাত্রীরা জীবন-মরণের সামনে দাঁড়িয়ে আছে। আমরা এই ঝড় পার করতে পারব ইনশাআল্লাহ।’

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন আইন সচিব গোলাম সারোয়ার, আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঙ্গজাই মারমা প্রমুখ।

advertisement