advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঘুষ দিয়েও মেলেনি চাকরি, ৯ পৃষ্ঠার ‘চিঠি’ লিখে যুবকের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৪:৪৩ পিএম | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৪:৪৯ পিএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

সরকারি চাকরি পাওয়ার আশায় ২ লাখ টাকা ঘুষ দিয়েছিলেন। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। যার জেরে মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের আবদুর রহমান। এর জেরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। আত্মহত্যার আগে তিনি নয় পৃষ্ঠার ‘সুইসাইড নোট’ লিখে গেছেন।  

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, মুর্শিদাবাদের লালগোলার বাসিন্দা আবদুর রহমান এসএসসি গ্রুপ-ডি পরীক্ষা দিয়েছিলেন। সে সময় এক দালাল যুবককে জানান, পরীক্ষা না দিলেও প্রাথমিক শিক্ষক পদে চাকরি পাওয়া যাবে। কিন্তু তার জন্য ৬ লাখ টাকা দাবি করা হয়।

advertisement

ওই যুবকের পক্ষে এত টাকা দেওয়া সম্ভব ছিল না। কোনো রকমে ২ লাখ টাকা জোগাড় করে দালালকে দেন আবদুর রহমান। এরপর সময় পেরিয়েছে, কিন্তু চাকরি পাননি। এরপর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেন আবদুর। আর গত মঙ্গলবার নিজ বাড়ি থেকে আবদুর রহমানের মরদেহ উদ্ধার হয়। মরদেহের পাশে ছিল নয় পৃষ্ঠার ‘সুইসাইড নোট’।

advertisement 4

আবদুর রহমানের পরিবারের দাবি, চাকরি নিয়ে অবসাদের কারণেই বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছেন রহমান। তবে প্রথমে পুলিশের দ্বারস্থ না হয়ে রহমানের দাফন সম্পন্ন করা হয়। পরে মুর্শিদাবাদের লালগোলা থানায় পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দেওয়া হলে গতকাল বৃহস্পতিবার মরদেহ কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির স্থানীয় নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘আত্মহত্যার ঘটনা অনভিপ্রেত। মানুষের হতাশা কোথায় পৌঁছেছে। চরম নৈরাজ্য গ্রাস করে ফেলেছে বাংলাকে। আদালতই কার্যত সরকারকে চালাচ্ছে।’

আর পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। অভিযুক্তের খোঁজ চলছে।

advertisement