advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইমরানকে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিথ্যাবাদী বললেন শেহবাজ

অনলাইন ডেস্ক
৪ অক্টোবর ২০২২ ০৭:১৯ পিএম | আপডেট: ৪ অক্টোবর ২০২২ ০৮:০৬ পিএম
ইমরান খান ও শেহবাজ শরীফ
advertisement

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) প্রধান ইমরান খানকে ‘পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিথ্যাবাদী’ হিসেবে অভিযুক্ত করেছেন দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ। আজ মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান।

শেহবাজ বলেছেন, ক্ষমতা থেকে উৎখাত হওয়ার পর ‘বিপজ্জনকভাবে ভোটারদের মধ্যে মেরুকরণ’ করতে সমাজে বিষ ছড়াচ্ছেন ইমরান।

advertisement

চলতি বছরের এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর নিজের প্রথম সাক্ষাৎকারে ৭০ বছর বয়সী শেহবাজ বেশ কিছু কথা বলেছেন। ২০১৮ সাল থেকে পাকিস্তান শাসন করা ইমরান খানের কারণে দেশের ভেতরে এবং বিদেশে পাকিস্তানের হওয়া ‘ক্ষতি’ নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। এমনকি ইমরানের নীতি পাকিস্তানের অর্থনীতিকে ধ্বংসের মুখে ফেলেছে বলেও অভিযোগ করেছেন।

advertisement 4

ইমরান খান নিজের ব্যক্তিগত এজেন্ডা অনুসারে পাকিস্তানের বিভিন্ন বিষয় পরিচালনা করেছেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ বলেন, ইমরানকে ‘ইতিহাসের সবচেয়ে অনভিজ্ঞ, আত্মকেন্দ্রিক, অহংকারী, অপরিণত রাজনীতিবিদ হিসেবে বর্ণনা করা যেতে পারে’।

প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন ইমরানের একটি ফোনালাপ ফাঁস হয় গত সপ্তাহে। এ বিষয়টি তুলে ধরে শেহবাজ দাবি করেন, ‘ইমরান খান যে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিথ্যাবাদী ফাঁস হওয়া অডিওগুলো এর ‘একটি অকাট্য প্রমাণ’। আমি এটি আনন্দের সঙ্গে বলছি না বরং বিব্রত এবং উদ্বেগের অনুভূতি নিয়ে বলছি। ব্যক্তিগত স্বার্থে বলা এসব মিথ্যাচারে কারণে আমার দেশের ভাবমূর্তি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি আগে কখনও চিন্তিত ছিলাম না। কিন্তু ইমরান খান এই সমাজে অসীম পরিমাণে বিষ ঢুকিয়েছেন এবং এটির এতটা মেরুকরণ করেছেন যে আগে কখনও হয়নি। তিনি তথ্য বিকৃত করছেন এবং ঘৃণা সৃষ্টি করছেন।’

উল্লেখ্য, গত এপ্রিলে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ করে আসছেন ইমরান খান। এসব সমাবেশে তিনি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন। এ নিয়ে দেশটির রাজনীতিতে উত্তাপ বিরাজ করছে।

মূলত, আগামী বছরের অক্টোবরে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন ঘিরে দেশজুড়ে নির্বাচনী সমাবেশ করছেন ইমরান খান। তার এসব সমাবেশ ঘিরে দেশটিতে রাজনৈতিক উত্তেজনা তুঙ্গে রয়েছে। তবে ইমরান খান বলছেন, তার জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে পড়েছে সরকার। তার দাবি, পাকিস্তানের বিরাজমান পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার একমাত্র উপায় হলো দেশে নতুন সাধারণ নির্বাচন নিশ্চিত করা।

advertisement