advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বানিয়াচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে পাখি শিকারের অভিযোগ

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
২৪ নভেম্বর ২০২২ ১০:৫১ পিএম | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২ ১০:৫১ পিএম
ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান পাখি শিকার করছেন
advertisement

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলা সদরের ২ নম্বর উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান ধন মিয়ার বিরুদ্ধে বন্দুক দিয়ে পাখি শিকার ও পাচারের অভিযোগ উঠেছে। হবিগঞ্জের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জ বন কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী ধন মিয়ার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

advertisement

জানা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও প্রকাশ হলে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্তে যান রেঞ্জ বন কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী। স্থানীয়দের বক্তব্য অনুযায়ী ইউপি চেয়ারম্যান ধন মিয়াসহ আরও কয়েকজন পাখি শিকার ও পাচার করছে। ঘটনার দিন পাখি শিকারের সময় স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যানকে বাধা দিলেও তিনি তাতে কর্ণপাত না করে পাখি শিকার করেন।

advertisement 4

পাখি শিকার ও পাচার করা বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২-এর দণ্ডনীয় অপরাধ।

বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অজয় চন্দ্র দেব জানান, অভিযোগের বিষয়টি অনুসন্ধান করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এসআই ওমর ফারুককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত ব্যক্তিগত আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে সাধারণ মানুষদের হত্যার উদ্দেশ্যে গুরুতর আহত করার অভিযোগও রয়েছে ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়ার বিরুদ্ধে।

এর আগে, বানিয়াচং উপজেলা সদরের ২ নম্বর উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়নে ছান্দ সর্দার নিয়ে বিরোধের জেরে প্রকাশ্যে বন্দুক দিয়ে গুলি চালান ধন মিয়া। তার এই গুলি চালানোর ফলে প্রায় ৩০/৪০ জন সাধারণ মানুষ আহত হন। অতিষ্ঠ হয়ে প্রতিকার চেয়ে একাধিক ভুক্তভোগী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগও করেছিলেন।

advertisement