পর্তুগালে খোলা মাঠে হবে না ঈদ জামাত

মনির হোসেন,পর্তুগাল
১৮ জুলাই ২০২১ ১৫:৩৬ | আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২১ ১৫:৩৬
পুরোনো ছবি

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে পর্তুগালে এখনও জনজীবন স্বাভাবিক হয়নি। এর মধ্যে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে ভাইরাটির সবচেয়ে ক্ষতিকর ভ্যারিয়েন্ট ডেলটা। যে কারণে এ বছর কোরবানীর ঈদের জামাত খোলা মাঠে আয়োজন করতে পারবে না দেশটির ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা।

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আগামী ২০ জুলাই পর্তুগালের মসজিদগুলোতে পালিত হবে ঈদুল আজহা। এদিন দেশটির বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত মসজিদগুলো ঈদের জামাত হলেও খোলা ময়দানে আয়োজনের অনুমোদন দেওয়া হয়নি। মসজিদে নামাজ আদায় করলেও মানতে হবে কড়া নিয়ম। মুসল্লিদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাসা থেকে ওযু করে জায়নামাজ সঙ্গে নিয়ে মসজিদে প্রবেশ করতে হবে। মসজিদে ঢোকার আগে শরীরে তাপমাত্রা নির্ণয় করিয়ে নিতে হবে।

রাজধানী লিসবনের সেন্ট্রাল জামে মসজিদে ৩টি, বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকার বায়তুল মোকাররম এবং জামে মসজিদে আটটি জামাত এবং বন্দর নগরী পর্তুর জামে মসজিদ এবং হযরত বেলাল (রঃ) মসজিদে দুটি করে জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তাছাড়া অদিভেলাস, সাকাবাম, কাসকাইস, সেতুবালসহ সারাদেশের বড় বড় শহরগুলোতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মসজিদগুলোতে দুটি অথবা তিনটি করে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এ ব্যাপরে পর্তুগাল রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং লিসবন জামে মসজিদের কমিটির সদস্য জহিরুল আলম জসিম বলেন, আমরা বরাবরের মতো এ বছরও কমিউনিটির পক্ষ থেকে মাঠে ঈদের জামাত করার জন্যে আবেদন করেছিলাম। কিন্তু ব্যাপকহারে করোনার ডেলটা ধরন বৃদ্ধি পাওয়ায় এবারে খোলা ময়দানে ঈদের জামাতের অনুমতি মেলেনি। তাছাড়া শতাধিক বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে এবং তাদের মধ্যে অনেকেই আইসিউতে অবস্থান করছে। সবশেষে করোনার এ সংকটময় সময় কাটিয়ে আগামীতে আমরা আবারও খোলা ময়দানের জামাতটির অনুমোদন পাবো বলে আশা রাখি।