advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

নিষিদ্ধ হচ্ছেন শাহাদাত

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৫৬
advertisement

আবারও বিতর্কে জড়ালেন শাহাদাত হোসেন রাজীব। এবার মাঠে খেলাচলাকালে সতীর্থের গায়ে হাত তোলার অভিযোগ উঠেছে এই পেসারের বিরুদ্ধে। গত রবিবার খুলনায় চলমান জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) খুলনা-ঢাকার মধ্যকার শিরোপানির্ধারণী ম্যাচের দ্বিতীয় দিন এ ঘটনা ঘটে। শাহাদাত ও আরাফাত সানী জুনিয়রÑ দুজনই ঢাকা দলের হয়ে নামেন। ম্যাচ চলাকালে তরুণ সানীকে চড়-ঘুষি-লাথি মারার অভিযোগ উঠেছে ৩৩ বছর বয়সী শাহাদাতের বিরুদ্ধে। জানা যায়, ফিল্ডিংয়ের সময় বল শাইন (ঘষে উজ্জ্বল) করে না দেওয়ায় সানির ওপর খেপে যান শাহাদাত। এ ঘটনার একপর্যায়ে শাহাদাতকে মাঠ থেকে বের করে দেওয়া হয়। আইন অনুযায়ী ম্যাচের বাকি দুই দিন বহিষ্কারও করা হয় তাকে।

শাহাদাতের ঘটনায় আমাদের সময়কে বেশি কিছু বলতে চাননি ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ। তিনি জানান, শাহাদাত যে ধরনের অপরাধ করেছেন, তাতে আচরণবিধির লেভেল ৪ ভঙ্গ হয়েছে। ম্যাচ রেফারি তার রিপোর্ট পাঠিয়েছেন টেকনিক্যাল কমিটির কাছে। যা যা ঘটেছে সেই রিপোর্টেই উল্লেখ করে দিয়েছেন বলে জানান আখতার আহমেদ। এদিকে শাহাদাত জানান, আমি আরাফাত সানীকে বলেছিলাম বল শাইন করে দিতে। এটা বলার পর সে আমার সঙ্গে উচ্চবাচ্য শুরু করে। সানী আমার সঙ্গে যখন বাগ্বিত-া করছিলÑ তখন মোহাম্মদ শহীদ এসে ওকে বলল, রাজিব ভাই তোমার চেয়ে অনেক সিনিয়র। ওনার সঙ্গে এভাবে কেন কথা বলছ? এর পরও সানী আমার সঙ্গে ঝগড়া করতেই থাকে। তখন মেজাজ হারিয়ে ফেলি। শাহাদাতের দাবিÑ সংবাদমাধ্যমে যা প্রকাশ পেয়েছে তা সঠিক নয়। তিনি বলেন, ওকে (সানী) আমি কিল-ঘুষি-লাথি মারিনি। শুধু ধাক্কা দিয়েছিলাম। এর পর অবশ্য দুজনই মিলে গেছি। বিষয়টি নিয়ে ম্যাচ রেফারি রিপোর্ট করেছেন। আমাদের হয়তো ক্রিকেট বোর্ডে ডাকতে পারে। তিনি আরও বলেন, জাতীয় দলে নেই, বিপিএলেও দল পাইনি। ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেই সংসার চালাই। সামনে অনেক খেলা আছে। যদি খেলতে না-ই পারি তা হলে কী করে চলব? আমি ভুল করে ফেলেছি। আমার ওই কর্মকা-ের জন্য আমি লজ্জিত।

গুরুতর অপরাধ করেছেন শাহাদাত। আচরণবিধির লেভেল ৪ ভঙ্গ করলে একজন ক্রিকেটার এক বছর থেকে আজীবনও নিষিদ্ধ হতে পারেন। টেকনিক্যাল কমিটির সভাশেষে এ ব্যাপারে জানা যাবে। শাহাদাতের সামনে যে বড় শাস্তি অপেক্ষা করছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এর আগে বেশ কয়েকবার শৃঙ্খলাজনিত কারণে শাস্তি পাওয়ার রেকর্ড রয়েছে শাহাদাতের। শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনের দায়ে জেলে যেতে হয়েছিল তাকে। এমনকি তার স্ত্রীও জেলে যান। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ করেছিল শাহাদাতকে।

advertisement