advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি নয় : আপিল বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ নভেম্বর ২০১৯ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ১২:৫৮ এএম
advertisement

গ্রামীণফোনের কাছে পাওনা প্রায় ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা দাবি নিয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) আবেদনের ওপর আদেশ পিছিয়েছে। আদালত আগামী রবিবার আদেশের জন্য দিন রেখেছেন। আপিল ভিাগ বলেছেন, এ সময়ে এ বিষয় নিয়ে গ্রামীণফোন অন্য কোনো ফোরামে (আরবিট্রেশনের জন্য) যেতে পারবে না। গতকাল সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে গ্রামীণফোনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ও মোহাম্মদ মেহেদী হাসান চৌধুরী। অন্যদিকে বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মাহবুবে আলম ও খন্দকার রেজা-ই-রাকিব। পরে আদালতের বরাত দিয়ে খন্দকার রেজা-ই-রাকিব সাংবাদিকদের বলেন, যেহেতু (বিটিআরসি) পাওনা নিয়ে নিষ্পত্তির বিষয়টি দেশের সর্বোচ্চ আদালতে বিচারাধীন, সেহেতু এটি আদালতের বাইরে অন্য কোনো মধ্যস্থতার মাধ্যমে সালিশ (আরবিট্রেশন) করা যাবে না। এর আগে গত ১৪ নভেম্বর বিটিআরসির পাওনা টাকার মধ্যে ২০০ কোটি টাকা শর্তসাপেক্ষে দিতে রাজি হয় মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন। সেদিনের শুনানি শেষে মামলায় আদেশের জন্য ১৮ নভেম্বর দিন ধার্য ছিল আপিল বিভাগে।

উল্লেখ্য, প্রায় ২৭টি খাতে ১২ হাজার ৫৮০ কোটি (বিটিআরসির ৮ হাজার ৪৯৪ কোটি ও এনবিআরের ৪ হাজার ৮৬ কোটি) টাকা পাওনা দাবি করে গ্রামীণফোন লিমিটেডকে গত ২ এপ্রিল চিঠি দেয় বিটিআরসি। ওই পাওনা দাবির যৌক্তিকতা নিয়ে গ্রামীণফোন নিম্নআদালতে একটি মামলা করে এবং পাওনা দাবির অর্থ আদায়ের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চায়।

গত ২৮ আগস্ট ঢাকার যুগ্ম জেলা জজ প্রথম আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন নামঞ্জুর করেন। এর বিরুদ্ধে গ্রামীণফোনের পক্ষে ১৬ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়।

advertisement