advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

অসহায় রাবেয়ার অঝোর কান্না

গাজীপুর সদর প্রতিনিধি
১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৫৯
advertisement

শতবর্ষী হতদরিদ্র বিধবা রাবেয়া আক্তার। দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে স্বামী গত হয়েছেন মুক্তিযুদ্ধের আগেই। এর পর মারা যান দুই ছেলেও। সহায় সম্বল বলতে ছিল স্বামীর রেখে যাওয়া ভিটেতে একটি কাঁচাঘর। বয়সের ভারে ন্যুব্জ হয়ে পড়ায় কাজ করতে পারেন না। বাধ্য হয়েই মেয়ের আশ্রয়ে দিন কেটে যাচ্ছিল। কিন্তু এটাও সহ্য হচ্ছিল না দুর্বৃত্তদের। গত রবিবার রাতে অসহায় এই নারীর মাথা গুঁজার ঠাঁই ঘরটিও পুড়িয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। এর পর থেকেই অঝোরে কাঁদছেন রাবেয়া। গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা উত্তরপাড়া এলাকার প্রয়াত সব্বত আলীর স্ত্রী তিনি।

রাবেয়ার ভাষ্য, মেয়ে মাজেদা বেগমকে নিয়েই থাকতেন মাটির একটি খুপরি ঘরে। প্রতিদিনের মতো রাতে ঘুমিয়ে পড়েন। মধ্যরাতে আগুনের শিখায় ঘুম ভাঙলে জীবন বাঁচাতে জানালা খুলে বেরিয়ে আসেন। শেষ আশ্রয়টুকুও হারিয়ে তার সামনে ঘোর অন্ধকার।

মাজেদা খাতুনের ভাষ্য, দীর্ঘদিন ধরেই তাদের এ বসতভিটার জমি নিয়ে স্বজনদের সঙ্গে মতবিরোধ চলছে। তার ধারণা, এর জের ধরেই তার মায়ের ঘরে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। তিনি থানায় অভিযোগ করেছেন।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লিয়াকত আলী জানান, এ ঘটনায় কেউ জড়িত থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্রীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার রামপ্রসাদ পাল জানান, দমকল কর্মীরা ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই মাটির ঘরটি পুড়ে যায়। তবে আগুন লাগার কারণ এখনো অজ্ঞাত।

advertisement