advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

হারে শুরু সালমাদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:৩৭ পিএম
advertisement

অস্ট্রেলিয়ার পর বাংলাদেশকে হারিয়ে মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেমিফাইনালের পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে থাকল ভারত। সোমবার পার্থে ভারতের বিপক্ষে ১৮ রানের হার দিয়ে এবারের নারী বিশ্বাকাপে যাত্রা শুরু করল সালমারা।

advertisement 3

ভারতীয় মেয়েদের শুরুর তা-বে আভাস আসছিল বিশাল সংগ্রহের। তবে মাঝে বাংলাদেশের বোলারদের নিয়ন্ত্রণে দেড়শ ছাড়ায়নি ভারতের ইনিংস। তবু এখন পর্যন্ত নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলমান আসরের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ গড়েছে তারা। পার্থে সোমবার আগে ব্যাটিং করে ১৪২ রান তোলে ভারত। বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ১৭ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় ৩৯ রান করেন শেফালি ভার্মা। ৩৭ বলে ৩৪ রান করেন জেমিমা রদ্রিগেস। বাংলাদেশের হয়ে দুইটি করে উইকেট নেন সালমা খাতুন ও পান্না ঘোষ।

advertisement 4

চলতি মাসের শুরুতে ভারতের যুব দল হারল মানেলেও হার মানলেন না ভারতের নারী দল। ৯ ফেব্রুয়ারি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশের কাছে হেরে ট্রফি হাতছাড়া হয় ভারতের। ভারতের বিরুদ্ধে ১৪৩ রান তাড়া করে ১২৪ রানে থেমে যায় বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে মুর্শিদা খাতুন, নিগার সুলাতানারা অনেকটা সময় পর্যন্ত বাংলাদেশকে রাখেন লড়াইয়ে। তবে শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার শামীমা সুলতানা (৮ বলে ৩)। কিছুই করতে পারেননি তিন নম্বরে নামা সানজিদা ইসলামও (১৭ বলে ১০)। ব্যর্থতার মিছিলে নাম লেখান আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটার ফারজানা হক, আউট হন রানের খাতা খোলার আগেই। তবে আরেক ওপেনার মুর্শিদা খাতুন এবং উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিগার সুলতানা জ্যোতি করেন দায়িত্বশীল ব্যাটিং। তাদের ব্যাটে আশা জেগেছিল জয়ের। ওপেনার মুর্শিদার ব্যাট থেকে আসে ২৬ বলে ৩০ রান, জ্যোতি করেন ২৫ বলে ৩৫ রান। কিন্তু এ দুজনের বিদায়ের পর আর কেউই তেমন কিছু করতে পারেননি। অধিনায়ক সালমা খাতুন ৫ বলে ২ রানে অপরাজিত ছিলেন। সহ-অধিনায়ক রোমানা আহমেদের ব্যাট থেকে আসে ৮ বলে ১৩ রান, যা জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না। এর আগে দলের পক্ষে দুর্দান্ত বোলিং করেন অধিনায়ক সালমা খাতুন ও পেসার পান্না ঘোষ। দুজনই নিজেদের ৪ ওভারে ২৫ রান খরচায় নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। এ ছাড়া ভারতের বাকি দুই উইকেটই পড়েছে রানআউটের মাধ্যমে।

advertisement