advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

এক সপ্তাহে কমেছে ৩৪ শতাংশ মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
৯ মে ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ৮ মে ২০২১ ২৩:৫০
advertisement

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে আরও ৪৫ জন। এ নিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১১ হাজার ৮৭৮ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজর ২৮৫ জন। গত এক সপ্তাহে নতুন রোগী শনাক্ত ১৯ দশমিক ৯০ শতাংশ এবং মৃত্যু ৩৪ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, দেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনার রোগী শনাক্ত হয়। এর পর সংক্রমণ বেড়ে জুন-জুলাই মাসে সর্বোচ্চ চূড়ায় পৌঁছয়। ওই সময় সংক্রমণের হার ছিল ২৩-২৪ শতাংশ। এর পর সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাস থেকে সংক্রমণ থেকে কমতে শুরু করে এবং চলতি বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে সংক্রমণ কমে ৩ শতাংশের নিচে নেমে আসে। কিন্তু হঠাৎ করে চলতি বছরের মার্চের শুরু থেকে সংক্রমণ আবার বাড়তে থাকে এবং এপ্রিলে সংক্রমণ হার ২৩-২৪ শতাংশে পৌঁছয়। তবে দেশে গত ১৭ এপ্রিল থেকে সংক্রমণ কমছে। গেল এক সপ্তাহে দেশে করোনার নমুনা পরীক্ষা, রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ও সুস্থতা সবই কমেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনার সপ্তাহিক সংক্রমণ পরিস্থিতির তথ্য বলছে, দেশে করোনা সংক্রমণের ৬১তম সপ্তাহ (২ মে থেকে ৮ মে পর্যন্ত) শেষ হয়েছে। এ সপ্তাহে করোনার ১ লাখ ২৯ হাজার ১৫৮টি নুমনা পরীক্ষা করে রোগী শনাক্ত হয়েছে ১১ হাজার ৫৪৩ জন। একই সময়ে মারা গেছে ৩৬৮ জন এবং সুস্থ হয়েছে ২২ হাজার ১৬২ জন।

এর আগের সপ্তাহে (২৫ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত) শেষ হয়েছে। এই সপ্তাহে করোনার ১ লাখ ৬১ হাজার ২৪২টি নুমনা পরীক্ষা করে রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৮ হাজার ১৮৪ জন। একই সময়ে মারা গেছে ৫৫৮ জন এবং সুস্থ হয়েছে ৩১ হাজার ৫২০ জন।

করোনার সপ্তাহিক সংক্রমণ পরিস্থিতির তুলনামূলক চিত্র বলছেÑ দেশে এক সপ্তাহের ব্যবধানে করোনার নমুনা পরীক্ষা ১৯ দশমিক ৯০ শতাংশ কমেছে। একই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত ৩৬ দশমিক ৫২ শতাংশ, মৃত্যু ৩৪ দশমিক ৫ শতাংশ এবং সুস্থতা ২৯ দশমিক ৬৯ শতাংশ কমেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গতকাল শনিবারের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪ হাজার ৭০৩টি। এর মধ্যে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ২৮৫ জন। ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় রোগী শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৭৪ শতাংশ। দেশে এখন পর্যন্ত ৫৬ লাখ ১৩ হাজার ৯৭৯টি নমুনা পরীক্ষা করে রোগী শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৭২ হাজার ১২৭ জন। মোট নমুনা পরীক্ষায় রোগী শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ৪৫ জন। এর মধ্যে ২৬ জন পুরুষ এবং ১৯ জন নারী। ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের বেশি বয়সী ২২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন এবং ১ থেকে ১০ বছরের মধ্যে ২ জন রয়েছে।

মৃতদের অঞ্চল বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রামে ১৩ জন, রাজশাহী ১ জন, খুলনায় ৩ জন, বরিশালে ২ জন, সিলেটে ২ জন, রংপুরে ২ জন ও ময়মনসিংহে ১ জন রয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে ২ হাজার ৪৯২ জন। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১ হাজার ৫৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৪৪ জন, রংপুর বিভাগে ৩১৭ জন, খুলনায় ২১১ জন, বরিশালে ১৫০ জন, রাজশাহীতে ১৪৬ জন, সিলেটে ১৬৩ জন এবং ময়মনসিংহে ৪ জন রয়েছে।

advertisement