advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ইউরো ২০২০

১১ জুন ২০২১ ০০:০০
আপডেট: ১০ জুন ২০২১ ২৩:১৯
advertisement

ইউরোর উদ্বোধনী রোমে

২০২০ সালে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা মহামারীতে সেটা এ বছর হচ্ছে। যদিও নাম সেই ইউরো ২০২০ই থাকছে। আজ রোমে তুরস্ক ও ইতালির খেলা দিয়ে আসর শুরু হচ্ছে। ফলে রোমে উদ্বোধনী হচ্ছে। যদিও এবারের ইউরো ১১টি শহরে অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান রয়েছে। আর খেলা রাত ১টায় শুরু হবে।

ভিডিও অ্যাসিসট্যান্ট রেফারি থাকছে

এবারের ইউরোতে ভিডিও অ্যাসিসট্যান্ট রেফারি থাকছেন। ফলে গোল বা গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত তারা নেবেন। গোললাইন টেকনোলজি তো রয়েছেই। রেফারির সিদ্ধান্ত নিখুঁত করতেই এ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বিশ্বকাপে এ পদ্ধতি চালু হয়েছে।

বিশেষ নিয়মনীতি মেনে দর্শক আসবেন

ইউরোর ম্যাচগুলোতে ইংল্যান্ডে মাঠে বসে খেলা উপভোগ করতে হলে দর্শকদের করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট প্রদর্শন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এতে করে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে রবিবার ইংল্যান্ডের প্রথম ম্যাচটি হতে যাচ্ছে- এ প্রক্রিয়ায় দর্শকদের মাঠে আনার প্রথম ম্যাচ। ইউরোপিয়ান সর্বোচ্চ সংস্থা উয়েফা নিশ্চিত করেছে- ব্রিটেনে ইউরোর টিকিটধারীরা স্টেডিয়ামে প্রবেশের আগে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ ও একই সঙ্গে পরিপূর্ণ ভ্যাকসিনেটেড থাকতে হবে। ভ্যাকসিনের উভয় ডোজই ম্যাচের অন্তত ১৪ দিন আগে নেওয়া থাকতে হবে। তবে ইউরোর স্বাগতিক অন্যান্য ভেন্যুতে দর্শকদের কেবল নেগেটিভ সনদ হলেই তারা মাঠে প্রবেশ করতে পারবে।

কোয়ারেন্টিনে ছাড় দিচ্ছে জার্মানি

ব্রিটেনে সম্প্রতি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করলেও ইউরো-২০২০ টুর্নামেন্টের সময় ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও ওয়েলস দলের জার্মানিতে প্রবেশের পর কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে জার্মান সরকার। আগামী ২ জুলাই মিউনিখের কোয়ার্টার ফাইনালে এ দল তিনটির খেলার সম্ভাবনা রয়েছে। এমনটি ঘটলে তাদেরকে কোয়ারেন্টিন পালন থেকে মুক্তি দেওয়া হবে। যদিও যুক্তরাজ্য ও উত্তর আয়ারল্যান্ডের ভ্রমণকারীদের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপিত আছে। সেখানে প্রবেশের পর কমপক্ষে ১০ দিনের আইসোলেশন পালন করতে হবে সফরকারীকে।

ভ্যাকসিনের আওতায় স্পেন

স্প্যানিশ দলে দুই খেলোয়াড় করোনা পজিটিভ হওয়ার পর দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় পুরো ইউরো স্কোয়াডকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছে। ইউরো শুরু হতে আর মাত্র একদিন বাকি থাকলেও করোনার হানায় স্প্যানিশ দলটি বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছে। এই ঘোষণা আসার ঘণ্টখানেক আগে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি ১৭ রিজার্ভ খেলোয়াড় নিয়ে একটি ‘সমান্তরাল’ দল ঘোষণা করেছে। বর্তমান দলে যদি করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়, তবে রিজার্ভ দল থেকে নতুন খেলোয়াড় ডাকা হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ক্যারোলিনা ডারিয়াস জানিয়েছেন ইউরোর জন্য ঘোষিত জাতীয় ফুটবল দলের পাশাপাশি অলিম্পিকে অংশগ্রহণকারী সব আন্তর্জাতিক পেশাদার ক্রীড়াবিদকে এই ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে।

সফল জার্মানি ও স্পেন

আজ থেকে শুরু হবে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ষোলোতম আসর। আগের ১৫ আসরে শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছে ১০টি দেশ। সর্বোচ্চ তিন বার করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জার্মানি ও স্পেন। দুবার জিতেছে ফ্রান্স। স্পেন শিরোপা জিতেছে টানা দুই আসরে। একবার করে শিরোপা জিতেছে সোভিয়েত ইউনিয়ন, চেকোস্লোভাকিয়া, ডেনমার্ক, গ্রিস, ইতালি, নেদারল্যান্ডস ও পর্তুগাল।

advertisement