advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

দোষী হলে পরীমনির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সমিতি

বিনোদন প্রতিবেদক
২৩ জুন ২০২১ ১৭:০৭ | আপডেট: ২৩ জুন ২০২১ ২১:১৭
পরীমনি। পুরোনো ছবি
advertisement

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমনি। সেই মামলার প্রধান আসামিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরীর সঙ্গে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর এই ঘটনায় তার পাশে দাঁড়িয়েছে শোবিজ অঙ্গনসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষজন। সবাই এর সুষ্ঠু বিচার চেয়েছেন।

তবে প্রকৃত ঘটনা আড়াল করে পরীমনি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে অনেকেই আবার কথা তুলেছেন। এ বিষয়ে পরীর বিরুদ্ধে একের পর তথ্যও বেরিয়ে আসছে। ইতিমধ্যেই রাজধানীর গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাব কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছে, বোট ক্লাবের ঘটনার আগে পরী তাদের ক্লাবে অসদাচরণ ও ভাঙচুর করেছেন। এরপর বনানী ক্লাবে এক তারকা দম্পতির অনুষ্ঠানেও ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে পরীর বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যায়, পরীমনি বোট ক্লাবের একটি চেয়ারে বসে মদ পান করছেন। আর ক্লাবের পরিচালনা পরিষদের সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদ পরীমনিকে মদ পান করতে নিষেধ করছেন। পরীর মামলাটি নিবিড়ভাবে তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

শোনা যাচ্ছে, পরীমনি নাকি প্রায় রাতেই তার কস্টিউম ডিজাইনার জিমিসহ কয়েকজন তরুণ-তরুণী নিয়ে অভিজাত ক্লাব ও তারকা হোটেলে ঘুরে বেড়াতেন।

কথা রটেছে, তার কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে বিভিন্ন সামাজিক ক্লাব ও বারে নিষিদ্ধ হচ্ছেন পরীমনি। ক্লাব ও বারগুলোর এ ধরনের সিদ্ধান্তকে নাকি সমর্থনও জানিয়েছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক, পরিচালক, শিল্পী ও প্রদর্শকরা। শুধু তাই নয়, পরীমনি যদি দোষী হয় তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলছে বাংলাদেশে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর নেতারা।  

পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান বলেন, ‘অনেক কিছুই শুনছি। তবে এটা মনে রাখতে হবে, পরীমনির মামলা তদন্তাধীন। আমরা এর ফলের দিকে চেয়ে আছি। যদি পরী দোষী হন, তাহলে সাংগঠনিকভাবে একটা ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে সেটা শিল্পী সমিতিকে সঙ্গে নিয়ে, যৌথভাবে।’

advertisement