advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

কলাপাড়ার শিববাড়িয়া নদী তীর দখল করে বালুর ব্যবসা

নিজস্ব প্রতিবেদক, পটুয়াখালী
২৪ জুলাই ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ জুলাই ২০২১ ১১:১০ পিএম
advertisement

কলাপাড়ার শিববাড়িয়া নদীতীর থেকে প্রায় ৫০ ফুট অভ্যন্তরে মাটির বাঁধ দিয়ে দখল করে চলছে জমজমাট বালুর ব্যবসা। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নদীতীর দখলের এমন চিত্র প্রত্যক্ষ করার পরও পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ জেলেদের।

উপজেলার মহিপুর থানার শিববাড়িয়া নদীতীর দখল করে নির্মাণ করা হয়েছে বালু ব্যবসার ঘাট। ঘাটটি এক পরিবহন ব্যবসায়ীর কাছে ১ লাখ টাকায় ভাড়া দিয়েছেন স্থানীয় বেল্লাল কোম্পানি। তার দাবি, সরকারি খাস খতিয়ানের ভূমি বন্দোবস্ত পাওয়া মালিকপক্ষের কাছ থেকে ক্রয়সূত্রে নদীর ওই অংশের মালিক এখন তিনি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বেল্লাল কোম্পানির ডগের পাশেই এই নদী দখল করে ভাড়া দিয়েছেন তিনি। এতে নদীর পানির স্বাভাবিক প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হওয়াসহ মাছ ধরা ট্রলারসমূহ যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে নদীর ওই অংশ দিয়ে স্বাভাবিকভাবে ট্রলার চলাচল করতে পারছে না।

নদীর তীর ভাড়া নেওয়া হিমি পরিবহনের মালিক জাকির হোসেন বলেন, আমি বেল্লাল কোম্পানির কাছ থেকে এক লাখ টাকায় ভাড়া নিয়েছি। দখলদার বেল্লাল কোম্পানি বলেন, বৈধ কাগজপত্র নিয়ে এখানে বালুর ব্যবসা করছি।

মহিপুর ইউনিয়ন তহশিলদার মো. আজিজুর রহমান জানান, নদীর মধ্যে অন্তত বিশ ফুট দখল করা হয়েছে। তবে কীভাবে নদীর মধ্যে বন্দোবস্ত পেয়েছে, আমি তা জানি না। কলাপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) জগৎবন্ধু ম-ল জানান, দখলদারদের দুএক দিনের মধ্যে নদীর তীর ছেড়ে দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

advertisement