advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

কবি অরুণাচল বসুর মৃত্যু

আমাদের সময় ডেস্ক
২৪ জুলাই ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২১ ১২:১১ এএম
advertisement

বাঙালি কবি ও অনুবাদক অরুণাচল বসু ১৯২৩ সালের ১২ সেপ্টেম্বর যশোরের ডোঙ্গাঘাটায় জন্মগ্রহণ করেন। ছোটবেলা থেকেই আঁকা এবং লেখালেখি করতেন তিনি। মাত্র ছয় বছর বয়সেই তার কবিতা লেখায়

হাতেখড়ি। বেলেঘাটার দেশবন্ধু হাইস্কুলে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ার সময় সুকান্ত ভট্টাচার্যের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। পরে তিনি সুকান্তের সহযোগী হিসেবে কাজ করেন।

অরুণাচল বসু বিভিন্ন পত্রিকায় দীর্ঘদিন কবিতা, গান, ছড়া লিখেছেন। তিনি চীনা, তুর্কি, জাপানি এবং রুশ ভাষার অনেক কবিতা অনুবাদ করেছেন। প্রথম জীবনে চিত্রশিল্পী হিসেবে পরিচিত হয়েছিলেন। এ ছাড়া নতুন সংস্কৃতি নামক একটি সংস্থার মূল সংগঠকও ছিলেন তিনি। তার জীবদ্দশায় ‘পলাশের কাল’ ও ‘দূরান্ত রাধা’ নামে দুটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছিল। এ ছাড়া তার লেখা ‘কবি কিশোর সুকান্ত’ (সরলা বসুর সাথে), ‘সুকান্ত : জীবন ও কাব্য’ ছিল বিশেষ উল্লেখযোগ্য। কবিতার বাইরে অনুবাদক হিসেবেও তিনি খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। মূলত রাশিয়ান কবিতার অনুবাদ করলেও অন্যান্য দেশের কবিতাও অনুবাদ করেছিলেন। প্রায় সাঁইত্রিশ বছর তিনি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পত্রিকায় এবং পা-ুলিপিতে লেখালেখি করেছেন। এ ছাড়াও তার আঁকা বিভিন্ন পত্রিকার প্রচ্ছদ আকারে প্রকাশ হয়েছিল। তার আর একটি পরিচয় তিনি ছিলেন সংগ্রাহক। বেশ কয়েকটি প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও দেশ-বিদেশের বেশকিছু আঁকা ছবির কপি তিনি সংগ্রহ করেছিলেন।

সেরিব্রাল থ্রম্বোসিসে আক্রান্ত হয়ে অরুণাচল বসু ১৯৭৫ সালের ২৪ জুলাই মারা যান। মৃত্যুর প্রায় ২৭ বছর পর তার রচিত কবিতা, গান ও অনুবাদ নিয়ে ‘অরুণাচল বসুর সংকলিত কবিতা’ নামে একটি সংকলন প্রকাশিত হয়।

advertisement