advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

নানা কর্মসূচিতে বিএনপি নেতাদের ঈদ উদযাপন

নজরুল ইসলাম
২৪ জুলাই ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২১ ১২:১১ এএম
advertisement

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গুলশানের ভাড়া বাসা ফিরোজায় এবারের ঈদ (ঈদুল আজহা) উদযাপন করেছেন। বোন সেলিমা ইসলাম ও ভাই শামীম এস্কান্দারসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্য নিয়েই এবার ঈদ করছেন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী। ঈদের দিন দুপুরে নিকটাত্মীয়দের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজ করেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ ছাড়া লন্ডনে থাকা তার বড় ছেলে তারেক রহমান, তার পরিবারের সদস্য এবং ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমানের স্ত্রী ও সন্তানদের সঙ্গে ফোনে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। বিএনপির চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার জানান, ঈদুল আজহা উপলক্ষে খালেদা জিয়া একটি গরু ও একটি ছাগল কোরবানি করেছেন। কোরবানির পশুর মাংসের কিছু অংশ তার বাসভবনের স্টাফদের খাবারের জন্য রাখা হয়। অধিকাংশ রাজধানীর কয়েকটি এতিমখানা এবং আশপাশের গরিবদের মধ্যে বিলি করা হয়। এছাড়া গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দুটি গরু কোরবানি দেওয়া হয়। ঈদের দিন রাতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান ও সেলিমা রহমান দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ২০০৮ সাল থেকে তার পরিবার নিয়ে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন।

তিনি স্ত্রী, সন্তান ও দলের নেতাকর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে ঈদ উদযাপন করেছেন। ঈদের নামাজ শেষে যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

ঈদের দিন ঢাকায় থাকা দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বরচন্দ্র রায় ও নজরুল ইসলাম খান দলের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও কবর জিয়ারত শেষে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

ঢাকায় ঈদ করেছেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সেলিমা রহমান। স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান নরসিংদী, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু সিরাজগঞ্জে নিজ নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করেছেন।

ঈদের পরদিন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায় কেরানীগঞ্জে তার নিজ বাড়িতে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এ ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু নোয়াখালী, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সরোয়ার বরিশাল, খায়রুল কবির খোকন নরসিংদী, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী লক্ষ্মীপুর, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স ময়মনসিংহ, সহদপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু নাটোরে এবং যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু ঢাকায় নামাজ ও জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত শেষে নিজ নির্বাচনী এলাকা টাঙ্গাইলে ঈদ করেন। দলের ভাইস চেয়ারম্যান শাহ্ মোয়াজ্জেম হোসেন, আবদুল্লাহ আল নোমান, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমদ, মোহাম্মদ শাহজাহান, আবদুল আউয়াল মিন্টু, অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম ঢাকায় ঈদ করেন। করোনামুক্ত দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদও ঢাকায় ঈদ করেন।

যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার নাসির উদ্দিন অসীম, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. ওবায়দুল ইসলাম, সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, সহ-প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান, নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল, ইশরাক হোসেনসহ বেশিরভাগ কেন্দ্রীয় নেতা ঢাকায় ঈদ করেছেন।

advertisement