advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

‘ফিজের কাছ থেকেও শিখছি’

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৫ জুলাই ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৫ জুলাই ২০২১ ০৮:৩৯ এএম
advertisement

তিন ফরম্যাটের জন্যই নিজেকে প্রস্তুত করছেন শরিফুল ইসলাম। জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের পাশাপাশি সতীর্থ মোস্তাফিজুর রহমানের কাছ থেকেও বোলিংয়ে উন্নতির জন্য নিয়মিত পরামর্শ নিয়ে থাকেন এ বাঁহাতি পেসার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তারা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবেন বলে গতকাল হারারে থেকে বিসিবির পাঠানো ভিডিওবার্তায় জানিয়েছেন শরিফুল ইসলাম। বিস্তারিত-

আপনার প্রস্তুতি কেমন হচ্ছে?

শরিফুল : সব মিলিয়ে ভালো যাচ্ছে। এখানে আসার পর থেকে টেস্টের আগে আমি লাল বলে খুব মনোযোগী ছিলাম। টেস্ট খেলা শুরুর দিন থেকেই আমি সাদা বলে প্র্যাকটিস শুরু করেছি। প্রথমে ওডিআইয়ের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি। তখন ওটিস গিবসনের সঙ্গে অনেক কাজ করেছি। উনি আমাকে অনেক ভালো ভালো পরামর্শ দিয়েছেন যে, ব্যাটসম্যানকে কীভাবে রিড করতে হয়। নতুন বলে, পুরনো বলে কীভাবে বোলিং করতে হয়। সব কিছু প্র্যাকটিস করা হয়েছে। সেগুলো ম্যাচে অ্যাপ্লাই করার চেষ্টা করেছি। ভালো ফল এসেছে।

টি-টোয়েন্টিতে শামীম পাটোয়ারীর অভিষেক হলো। কেমন দেখলেন?

শরিফুল : শামীমের ডেব্যু নিয়ে যদি বলি- আমি ওর সঙ্গে দুই বছর ধরে খেলছি। ও খুব ভালো ফিল্ডার এবং পাওয়ার হিটার। ভালো ব্যাটসম্যান। আমরা দুজন চাইব, ন্যাশনাল টিমে অনেক দিন সার্ভিস দেওয়ার জন্য, যাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে কিছু দিতে পারি।

মোস্তাফিজের সঙ্গে বোলিং নিয়ে আলোচনা করেন কিনা?

শরিফুল: মোস্তাফিজ ভাই এখন ইনজুরড। উনি না থাকাতে টিমে একটু প্রেশার আছে। সেটি আমি চেষ্টা করছি, যাতে প্রেশারটা না থাকে। সব সময় মোস্তাফিজ ভাই আমাকে প্র্যাকটিসে, ম্যাচের পর আমি যদি কোনো ভুল করি, আমাকে বলে এটা এ রকম হয়েছে, এটা এ রকম করলে ভালো হয়। প্র্যাকটিসে কোনো বোলিংয়ে যদি ভুল হয়, উনি প্রায় কোচের মতোই আমাকে শিখিয়ে দেন।

সাকিব-তামিমদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করার অনুভূতি কেমন?

শরিফুল : যখন ছোট ছিলাম ক্লাস থ্রি-ফোর-ফাইভে পড়তাম, তখন তামিম, সাকিব, মুশফিক, রিয়াদ ভাইদের খেলা দেখেছি। এখন তাদের সঙ্গে খেলছি। খুব ভালো সম্পর্ক হয়ে গেছে। এখানে সবাই আমরা একটা ফ্যামিলির মতো হয়ে আছি। মনে হচ্ছে না যে, ফ্যামিলির বাইরে আছি।

বায়ো বাবলে থাকার অভিজ্ঞতা কেমন?

শরিফুল : বায়ো বাবলের কথা যদি বলেন, প্রথম দিকে খুবই খারাপ লাগত। এখন মোটামুটি কিছুটা হলেও নিজের সঙ্গে খাপখাইয়ে নিয়েছি। কারণ কোভিডের কারণে এটি আমাদের পালন করতে হবে। তা ছাড়া খেলা অসম্ভব। সবই পরিস্থিতির শিকার। এগুলো নিয়ে যত চিন্তা করি, তত আরও খারাপ লাগে। এগুলো নিয়ে না চিন্তা করাই ভালো।

বড় দলগুলোর সঙ্গেও নিশ্চয়ই নিজেকে মেলে ধরার লক্ষ্য থাকবে আপনার?

শরিফুল : আমি চেষ্টা করব নিজেকে ফিট রেখে সামনে বড় বড় টিমের সঙ্গে ভালো কিছু করার। বড় টিমের সঙ্গে কিছু করতে পারলে নিজেরই ভালো লাগে। ওদের সঙ্গে চ্যালেঞ্জ নিতেও নিজেকে অনেক ভালো লাগে, যেসব বড় বড় ব্যাটসম্যান। ওখানে পারফরম করতে পারলে অনেক খুশি মনে হয়। খুব ভালো লাগে যে, হ্যাঁ আমি ভালো ভালো টিমের সঙ্গে ভালো পারফরম করেছি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ নিয়ে কী ভাবছেন?

শরিফুল : কালকে (আজ) যেহেতু আমাদের কাছে একটা ‘ফাইনাল’ ম্যাচই। আমরা যদি আমাদের সেরাটা দিতে পারি, যেমনÑ বোলিংয়ের জায়গা থেকে বোলার, ব্যাটসম্যান ও ফিল্ডাররা যদি সাপোর্ট দিতে পারি, আমার মনে হয়Ñ আমাদের জন্য ম্যাচটি সহজ হবে। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত আমরা পজিটিভ থাকব। দেখা যাক খেলা শেষে কী হয়। এখন থেকে আমরা পজিটিভ আছি যে, জিতব। জিতার মনোভাব নিয়েই মাঠে নামব।

advertisement