advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

এবার রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে যশোর থানায় অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:১২ পিএম | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৮:১৭ পিএম
পুরোনো ছবি
advertisement

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এক গ্রাহক। গতকাল শুক্রবার রাতে যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানায় জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল নামে ওই গ্রাহক বাদী হয়ে প্রতারণার অভিযোগ দেন। যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ২৯ মে ভোর রাত ৩টার দিকে ইভ্যালি থেকে এক লাখ ৩০ হাজার ১৪০ টাকা দিয়ে ভারতীয় বাজাজ কোম্পানির একটি পালসার মোটরসাইকেল কেনার জন্য টাকা দিয়েছিলেন জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল। টাকা পরিশোধের ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সাড়ে তিন মাস পার হলেও পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়া হয়নি। তাদের হটলাইন নম্বরে যোগাযোগ করা হলেও কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি। এভাবে দিনের পর দিন প্রতিষ্ঠানটি প্রতারণা করে আসছে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর আলম চঞ্চল বলেন, ‘ইভ্যালি ডটকমের চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে পণ্য কিনতে ওই প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ৩০ হাজার ১৪০ টাকা দিয়েছি। টাকা পরিশোধের সাড়ে তিন মাস হলেও মোটরসাইকেলটি এখনো পাইনি। বিভিন্ন সময় তাদের হটলাইনে ফোন দিলে পণ্যটি দ্রুতই পাঠানো হবে এমন কথা বলে। পরে ফোন দিলে আর রিসিভ করে না। তাই বাধ্য হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।’

যশোরের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, ‘ইভ্যালির সিইও মো, রাসেল এবং চেয়ারম্যান শামিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গুলশান থানায় মামলা হয়। আরিফ বাকের নামে ইভ্যালির এক গ্রাহক মামলাটি দায়ের করেন। ওই মামলায় রাসেল দম্পতিকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে র‍্যাব। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে র‍্যাব।

এরপর গুলশান থানায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গুলশার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওয়াহিদুল ইসলাম। অপরদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিটন তাদের রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। পরে গতকাল শুক্রবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলামের আদালতে তাদের হাজির করা হলে আদালত রাসেল এবং তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর ওইদিন রাতে হঠাৎ অসুস্থবোধ করায় রাসেলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে নেওয়া হয় মিডফোর্ড হাসপাতালে। তবে শারীরিক গুরুতর কোনো সমস্যা না থাকায় আবারও তাকে গুলশান থানায় নেওয়া হয়।

advertisement