advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ঘুরতে বেড়িয়ে বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল ৩ বন্ধুর

বরিশাল ব্যুরো
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৭:০৭ পিএম | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৭:২১ পিএম
নিহত সিয়াম ও চয়ন দাস। পুরোনো ছবি
advertisement

১৮ বন্ধু। ছয়টি মোটরসাইকেল। একরকম বহর সাজিয়ে ঘুরতে বেড়িয়েছিল। গন্তব্য ছিল বাকেরগঞ্জ থেকে বরিশাল। কিছুদূর এগিয়ে গেলে হঠাৎ বিপরীত দিকে থেকে আসা একটি বাসের সঙ্গে ধাক্কা লাগে বহরে থাকা এক মোটরসাইকেলে। সঙ্গে-সঙ্গেই সড়কে ছিটকে পড়ে মোটরসাইকেলে থাকা তিন কিশোর। মুমূর্ষু অবস্থায় তাদের শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও শেষ রক্ষা হয়নি। প্রাণ হারান তিন বন্ধু।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বরিশাল নগরী সংলগ্ন শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত (দপদপিয়া) সেতুতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দুর্ঘটনার পর রুপাতলী বাস মালিক সমিতির রাতুল-রোহান নামের বাসটি পুলিশ জব্দ করলেও চালক-হেলপার পালিয়ে যায়।

নিহতরা হলো- বাকেরগঞ্জ পৌর শহরের সুমন হাওলাদারের ছেলে সিয়াম, জয়দেব দাসের ছেলে চয়ন দাস এবং রাব্বি। তারা সবাই বাকেরগঞ্জ জেএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। তাদের প্রত্যেকের বয়স ১৫ থেকে ১৭ বছরের মধ্যে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সেতুতে মোটরসাইকেলটি বেপরোয়া গতিতে একটি বাসকে ওভারটেক করছিল। তখন বিপরীত দিক থেকে আরও একটি বাস এসে পড়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওই বাসের সঙ্গে ধাক্কা লেগে তিন কিশোর ছিটকে পড়ে।

নিহতদের বন্ধু রাকিব জানায়, তারা ১৮ জন বন্ধু ছয়টি মোটরসাইকেল নিয়ে শুক্রবার বিকেলে ঘুরতে বের হয়। বাকেরগঞ্জ থেকে তারা বরিশালের দিকে যাচ্ছিল। কীর্তনখোলা নদীর ওপর দপদপিয়া সেতুর পূর্ব পাড় থেকে সেতুতে ওঠার সময় সবার পেছনে ছিল রাব্বী, সিয়াম ও চয়নকে বহনকারী মোটরসাইকেলটি। তারা সেতুর ওপরে ওঠার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বাস তাদের মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে তিনজন সড়কে ছিটকে পড়ে। পরে গুরুতর অবস্থায় তিনজনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

শেবাচিম হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম জানায়, দুর্ঘটনায় আহত হয়ে তিনজনকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মাহতাব হোসেন স্কুলছাত্র সিয়াম ও চয়নকে মৃত ঘোষণা করেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন রাব্বীও মারা যায়। পরে ময়নাতদন্ত শেষে আজ শনিবার দুপুরে প্রত্যেকের পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

advertisement