advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ময়মনসিংহে দায়ের কোপে নারী পুলিশ আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১:৫৯ পিএম
advertisement

সদর উপজেলার চর ভবানীপুরের গ্রামের বাড়িতে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে এসে প্রতিপক্ষের রামদার কুপে পুলিশ সদস্য সুমাইয়া খাতুন গুরুতর আহত হয়েছেন। ১৮ সেপ্টেম্বর বিকালে এ ঘটনা ঘটে। সুমাইয়া ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুমে কর্মরত রয়েছেন। এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে কোতোয়ালি থানাপুলিশ। তারা হলেন আজিুল হক, সারোয়ার, আবুল কালাম ও মঞ্জু।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ বলেন, নারী পুলিশ সদস্য সুমাইয়া ছুটিতে এসে হামলার শিকার হয়েছেন। তার অবস্থা গুরুতর। তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় সুমাইয়ার ভাই আলী আকবর মামলা দায়ের করেছেন। বিভিন্ন জায়গা রাতভর অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত চার আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের চর ভবানীপুরে ২৩ বছর ধরে জমি নিয়ে আলী আকবর ও আজিজুল হকের পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। ১৮ সেপ্টেম্বর বিকালে এ নিয়ে বাগবিত-ার এক পর্যায়ে আজিজুল হকরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আলী আকবরের পরিবারের ওপর হামলা করে। বোন সুমাইয়া খাতুন তার শিশু বাচ্চাকে নিয়ে বারান্দায় বসে ছিলেন। প্রতিপক্ষ তার মাথায় রামদা দিয়ে কুপ দেয়। এতে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একই ঘটনায় সুমাইয়ার বোনও আহত হন।

advertisement
advertisement