advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মমতাকে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চাই : বাবুল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১:০৬ পিএম
advertisement

ভারতের রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিপরীতে তৃণমূল নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান দিন দিন শক্ত হচ্ছে। সেই কথা আবারও মনে করিয়ে দিলেন সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাবুল সুপ্রিয়। বাবুল বলেছেন, ২০২৪ সালে আমরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চাই। গতকাল সংবাদমাধ্যম এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সাক্ষাৎকারে বাবুল বলেন, ‘আমরা চাই, আমাদের দলের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী ২০২৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হবেন। ভারতের আগামী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য যারা বর্তমানে দৌড়ে আছেন, তাদের সবার মধ্যে মমতা ব্যানার্জী সবচেয়ে যোগ্য এবং সবাই এটি স্বীকার করবে।’

আগামী লোকসভা নির্বাচন হবে ২০২৪ সালে। ইতোমধ্যে ওই নির্বাচনের হিসেবনিকেশ শুরু হয়েছে। কিন্তু বিজেপি বিরোধী জোটের নেতা কে হবেন তা নিয়ে অনেক দিন থেকেই আলোচনা চলছে। ঐতিহ্যবাহী দল কংগ্রেস নিজেদের গ্রহণযোগ্যতা ধরে রাখতে না পারায় অন্য নেতৃবৃন্দ এগিয়ে গেছেন। এর মধ্যে মমতার গ্রহণযোগ্যতা কম নয়। মমতা নিজেও বেশ কয়েকবার এ ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন। বিধানসভা নির্বাচনী প্রচারে পায়ে চোট পাওয়ার পর বলেছিলেন, এক পায়ে বাংলা বিজয়, আর দুই পায়ে দিল্লি। সব মিলিয়ে এবারের নির্বাচনকে ‘বিজেপি হটাও’ হিসেবে দেখছে বিরোধীরা। এমন পরিস্থিতিতে গত শনিবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বাবুল।

দলবদল সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে বাবুল বলেন, ‘ব্যাপারটি এমন নয় যে দলবদল করে আমি কোনো ইতিহাস সৃষ্টি করেছি। আমার আগে প্রচুর নেতা দলবদল করেছেন। গত বিধানসভা নির্বাচনেই এক ঝাঁক নেতা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন, আবার অনেকে বিজেপি থেকে তৃণমূলেও এসেছেন।’ তৃণমূলে যোগ দেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিজেপি ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের পর রাজনীতি থেকে মন উঠে গিয়েছিল; কিন্তু এমন সময়ে দিদি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, এখনো আমার সামনে দেশ ও জনগণকে সেবা করার সুযোগ আছে।’

advertisement
advertisement