advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ব্যথা যখন কোমরে...

অধ্যাপক ডা. হারাধন দেবনাথ
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১০:২৯ পিএম
advertisement

বিভিন্ন কারণে কোমর ব্যথা হয়ে থাকে। এর মধ্যে মেরুদ-ে আঘাত লাগা, সঁংপঁষড় ংশবষবঃধষ ঢ়ধরহ, ঋরনৎড়সুধষমরধ, চংুপযড়ষড়মরপধষ ঢ়ধরহ, ংঢ়রহধষ ঃঁসড়ৎ, মেরুদন্ডে রহভবপঃরড়হ, পুঁজ হওয়া, মেরুদ-ে ড়ংঃবড়ঢ়ড়ৎড়ংরং, ভৎধপঃঁৎব ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। চখওউ বা ঢ়ৎড়ষধঢ়ংবফ ষঁসনবৎ রহঃবৎাবৎঃবনৎধষ ফরংশ কোমর ব্যথার অন্যতম প্রধান কারণ। আমাদের মেরুদ-ে দুটি কশেরুকার মধ্যে ফরংশ নামে এক ধরনের নরম হাড় রয়েছে, যার দুটি অংশ। একটি হলো- ধহহঁষঁং ভরনৎড়ংঁং এবং আরেকটি হলো- হঁপষবঁং ঢ়ঁষঢ়ড়ঁং। ধহহঁষঁং ভরনৎড়ংঁং, ফরংশ-এর বাইরে শক্ত আবরণ তৈরি করে। হঁপষবঁং ঢ়ঁষঢ়ড়ঁং-এর ভেতরে জেলির মতো থাকে। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ফরংশ-এর ভেতরের পানি শুকিয়ে যায়। ধহহঁষঁং ভরনৎড়ংঁং ছিঁড়ে গিয়ে ভেতরের হঁপষবঁং ঢ়ঁষঢ়ড়ঁং বের হয়ে আসে। ফলে নার্ভের রুটে চাপ পড়ে। এতে রোগীর প্রচ- কোমর ব্যথা হয়। ব্যথা পায়ে চলে আসে। হাঁচি-কাশি দিলে ব্যথা বেড়ে যায়। সামনের দিকে ঝুঁকে কাজ করলে ব্যথা বাড়ে। বুড়ো আঙুল ঝিনঝিন করে এবং পা অবশ হয়ে যায়। দেরিতে চিকিৎসা শুরু করলে পা প্যারালাইসিস হয়। সেক্স পাওয়ার কমে যায়। রোগী প্রসাব-পায়খানা ধরে রাখতে পারে না। বেশি দেরি হলে রোগী আর ভালো হয় না। গজও ড়ভ খঁসনড়ংধপৎধষ ংঢ়রহব করে আমরা রোগ নির্ণয় করে থাকি। পূর্ণ বিশ্রাম, ব্যথার ওষুধ সেবন ও ফিজিওথেরাপিতে ৯০ শতাংশ রোগীই ভালো হয়। ১০ শতাংশ রোগীর অপারেশন করতে হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সরকারি, বেসরকারি হাসপাতালগুলোয় সফলতার সঙ্গে গরপৎড়ংপড়ঢ়ব-এর সাহায্যে ছোট করে কেটে আমরা এ অপারেশন করে থাকি।

লেখক : অধ্যাপক, নিউরো সার্জারি বিভাগ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়

চেম্বার : ল্যাবএইড লিমিটেড, ধানমন্ডি, ঢাকা। ০১৭১১৩৫৪১২০

advertisement