advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মুফতি ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৮:২৩ পিএম | আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৮:৩৮ পিএম
মুফতি কাজী ইব্রাহিম। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

সামাজিক মাধ্যমে নানা বিষয়ে বক্তব্য দিয়ে আলোচিত-সমালোচিত মুফতি কাজী ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার প্রক্রিয়া চলছে। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। মামলা নথিভুক্ত হলে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ফারুক হোসেন বলেন, ‘কাজী ইব্রাহিম করোনা নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রচার করেছেন। দেশের মানুষকে হিন্দুস্তানের দালাল ও র-এর এজেন্ট বলেও দাবি করেন তিনি। এসব অভিযোগের বিষয়ে তাকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে গ্রেপ্তার দেখানো হবে।’

বেশ কিছুদিন ধরে ওয়াজ মাহফিল, ইউটিউব, ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে নানা বিতর্কিত বক্তব্য দিয়ে আসছিলেন মুফতি ইব্রাহিম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তার বক্তব্য ভাইরাল হয়। বিষয়গুলো নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয়।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে রাজধানীর লালমাটিয়ার জাকির হোসেন রোডের বাসা থেকে তাকে আটক করে ডিবির একটি দল। তাকে আটকের কারণের বিষয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) জানায়, ‘হিন্দুস্থানের দালাল বলে উসকানিমূলক বক্তব্য’, ‘বিভিন্ন বিষয়ে কাল্পনিক মতবাদ’, ‘করোনার সঙ্গে কথোপকথন’সহ নানা সময় বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত বক্তব্যের বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে আটক করা হয়েছে। তিনি সন্তোষজনক ব্যাখ্যা বা উত্তর না দিতে পারলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়েছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাটি।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (উত্তর) যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেন, ‘করোনা নিয়ে মিথ্যে তথ্য প্রচার করছেন কাজী ইব্রাহীম। সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়ে তার বক্তব্য ভাইরাল হয়। মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবসহ তার ওয়াজে উল্টাপাল্টা কথা বলে আসছেন। গতরাতেও ফেসবুক লাইভে তিনি বাংলাদেশের মানুষকে হিন্দুস্থানের দালাল ও র’-এর এজেন্ট বলে প্রচার করেছেন। তিনি বিভিন্ন সময়ে করোনা নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রচার ও ধর্মীয় উসকানিমূলক বক্তব্য প্রচার করেছেন। যা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা, বিতর্ক হচ্ছে। সেসব বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে ডিবি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।’

 

আরও পড়ুন : ধর্মীয় বক্তা মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে আটকের কারণ জানালো ডিবি

 
advertisement