advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বগুড়ায় যমুনায় ডুবে মেডিক্যাল ছাত্রের মৃত্যু

আখাউড়ায় পানিতে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া ও আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
১৭ অক্টোবর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২১ ০২:৩৪ এএম
মোসাব্বির হোসেন ফাহিম
advertisement

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীতে গোসল করতে নেমে মোসাব্বির হোসেন ফাহিম (২২) নামে এক মেডিক্যাল কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয়রা নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। ফাহিম বগুড়ার গাবতলী উপজেলার হাতিবান্ধা গ্রামের ফজলুল করিমের ছেলে। তিনি দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

অন্যদিকে আখাউড়ায় পানিতে ডুবে শাহেদ (৪) ও আয়েশা (৭) নামে দুই ভাইবোনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুরে মনিয়ন্দ ইউনিয়নের দিঘীরজান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তারা হলো ওই গ্রামের মো. আজাদ ভূঁইয়ার সন্তান। আয়েশা নোয়াপাড়া মাদ্রাসায় শিশু শ্রেণিতে পড়াশোনা করত।

সারিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, মরদেহ উদ্ধারের পর তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, গত শুক্রবার ফাহিম তার নানার বাড়ি সারিয়াকান্দি উপজেলার দীঘলকান্দি গ্রামে বেড়াতে যান। শনিবার সকাল ৮টার দিকে গ্রামের কিছু যুবকের সঙ্গে যমুনা নদীতে গোসল করতে নামেন। নদীর ওই স্থানে তেমন স্রোত না থাকলেও বালু উত্তোলনের কারণে গভীর গর্ত থাকায় ফাহিম সেখানে তলিয়ে যান। ঘটনার পর পরই স্থানীয় লোকজন নদীতে তল্লাশি শুরু করে। দুপুর ১২টার দিকে অর্ধকিলোমিটার ভাটিতে ফাহিমের মরদেহ পাওয়া যায়।

এদিকে আখাউড়ার ঘটনা সম্পর্কে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে শাহেদ ও আয়েশা বাড়ির পেছনে একটি পুকুরে গোসল করতে যায়। দীর্ঘক্ষণ তারা বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাদের খুঁজতে যান। এ সময় তারা শাহেদ ও আয়েশাকে পানিতে ভাসতে

দেখেন। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

advertisement
advertisement