advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার পরামর্শ জাফরুল্লাহর

চাঁদপুর প্রতিনিধি
১৭ অক্টোবর ২০২১ ০৮:১৭ পিএম | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৭:২৭ এএম
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল (বাঁয়ে) ও গণস্বাস্থ্য ট্রাস্টির প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। পুরোনো ছবি
advertisement

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে পদত্যাগ করার পরামর্শ দিয়েছেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ও গণস্বাস্থ্য ট্রাস্টির প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। আজ রোববার দুপুরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত চারজনের পরিবারের সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং ক্ষতিগ্রস্ত পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আসাদুজ্জামান খান খুব ভালো একজন মানুষ এবং বর্তমানে যে দুএকজন ভালো মন্ত্রী আছেন তার মধ্যে তিনি একজন। যেহেতু তাকে তার গোয়েন্দা সংস্থা মিস লিড করেছে এবং তিনি বলেছেন আমরা সব মন্দিরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি। যদি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হতো তাহলে এই মৃত্যুর ঘটনা ঘটত না। তাই তার পদত্যাগ করা উচিত। যদি তা না পারেন তাহলে অন্তত হাজীগঞ্জ এসে নিহতের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং প্রত্যেক মসজিদের ইমাম সাহেবকে ডেকে এনে হুকুম করুন যাতে মসজিদের মাইকে অন্তত সাধারণের উদ্দেশে বলেন আমরা হিন্দু মুসলমান সবাই ভাই ভাই।’

তিনি বলেন, ‘যে সমস্ত মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে প্রত্যেকটা মন্দিরের ক্ষতিপূরণ সরকারের দিতে হবে। দেরি নয় আগামীকাল থেকেই এই ক্ষতিপূরণ দেওয়া শুরু করতে হবে।’

গণস্বাস্থ্য ট্রাস্টির প্রতিষ্ঠাতা আরও বলেন, ‘সরকার জনগণের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। সরকার শুধু হিন্দু বা মুসলিমের নয়, সকলের নিরাপত্তা দিতে হবে। যা দিতে সরকার ব্যর্থ। আর এই ব্যর্থতার মূল কারণ হচ্ছে গণতন্ত্র। সরকারের এখন সময় হয়েছে পদত্যাগ করে জাতীয় সরকার গঠন করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে দেওয়া। সরকারকে খেয়াল রাখতে হবে আমাদের দেশের ইস্যুতে যেন ভারতীয় মুসলমানদের ওপর কোনো আঘাত না আসে। এ বিষয়ে সরকারকে সাহসিকতার পরিচয় দিতে হবে।’

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘হোম মিনিস্টার তখন ভূল বলেছিলেন। উনি নিরাপত্তা দিতে পারেননি তাই আমরা মনে করছি আজ জাতীয় সরকার এনে নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের এনে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে আমরা একত্রে থাকতে চাই।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, ভাসানী অনুসারী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, ৬৯‘ শহীদ আসাদের ছোট ভাই ডা. নুরুজ্জামান ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমানসহ আরও অনেকে।

advertisement
advertisement