advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

পাকিস্তানি মানবপাচারকারীকে ধরতে যুক্তরাষ্ট্রের পুরস্কার ঘোষণা!

অনলাইন ডেস্ক
১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৯:০৫ এএম | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৯:০৫ এএম
পাকিস্তানি নাগরিক আবিদ আলী খান। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

পাকিস্তানি নাগরিক আবিদ আলী খানের বিষয়ে তথ্য দিলে দুই মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট। গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতির মাধ্যমে স্টেট ডিপার্টমেন্ট এই ঘোষণা দেয় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সন্দেহভাজন মানবপাচারকারী আবিদ আলী খানের বিষয়ে দুটি পুরস্কার ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। যার প্রত্যেকটির অর্থের পরিমাণ এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার। প্রথমটি হলো- আবিদ আলীকে গ্রেপ্তার ও দোষী সাব্যস্ত করা যায় এমন তথ্য প্রদান। আর দ্বিতীয়টি তার মানব চোরাচালান নেটওয়ার্কের আর্থিক বিঘ্ন ঘটানো যায় এমন তথ্য প্রদান।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আবিদ আলি খানের চোরাচালানকারী সংগঠনটি আর্থিকভাবে দুর্বল এমন মানুষদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে। উচ্চ ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও টাকার বিনিময়ে এসব মানুষদের পাচার করে চক্রটি। যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করা ব্যক্তিরা প্রায়ই দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকা দিয়ে বিপজ্জনক রাস্তায় ভ্রমণ করতে বাধ্য হয়। এর মধ্যে অনেক দিন ধরে হাঁটা, সামান্য খাবার ও পানি সরবরাহ, ডাকাতি এবং সন্ত্রাসী হামলার মতো বিষয়গুলো তাদের মুখোমুখি হতে হয়।

ওই বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে মার্কিন বিচার বিভাগ আবিদ আলীর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করে। যেখানে তার বিরুদ্ধে অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অভিযোগ তোলা হয়। এরই জেরে সন্দেহভাজন ওই মানবপাচারকারীর বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলো।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের ট্রান্সন্যাশনাল অর্গানাইজড ক্রাইম রিওয়ার্ডস প্রোগ্রামের অধীনে এই পুরস্কার দেওয়া হবে। জানা গেছে, এ প্রোগ্রামের আওতায় এ পর্যন্ত ১৩৫ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। আর ১৯৮৬ সাল থেকে এই কার্যক্রম শুরুর পর এখনো পর্যন্ত মোট ৭৫ জনেরও বেশি আন্তর্জাতিক অপরাধীকে বিচারের আওতায় আনা হয়েছে।

advertisement
advertisement