advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

রংপুরের জেলেপল্লীতে হামলার ঘটনায় দুই মামলা

রংপুর প্রতিনিধি
১৮ অক্টোবর ২০২১ ০১:৫০ পিএম | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৪:১৩ পিএম
পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দুরা। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

রংপুরের পীরগঞ্জের মাঝিপাড়া হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার রাত থেকে আজ সোমবার সকাল পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পীরগঞ্জ থানায় দুটি মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়া আরও একাধিক মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও পীরগঞ্জ থানা সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে, গতকাল সকাল ১১টার দিকে রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল ওয়াহাব ভূঞা, পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, পীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র তাজীমুল ইসলাম শামীম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিরোদা রানী রায়, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর সভাপতি শাফিয়ার রহমান শফি, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডলসহ র‌্যাব ও বিজিবি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দুদের পাশে থাকার আশ্বাস প্রদান করেন।

অপরদিকে রংপুর-৬ (পীরগঞ্জ) আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি সার্বক্ষণিকভাবে এলাকার খোঁজ-খবর রাখছেন এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিচ্ছেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে পুনঃবাসন করা হবে।

এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ৬৬ জন মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার, শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতারও আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন অভিযোগ করেন, ১৮টি বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করে ভস্মিভূত করা হয়েছে। ২টি দোকান ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। এছাড়া আরও ২ বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছে। এলাকার রাধাগোবিন্দ মন্দিরে হামলা চালিয়ে প্রতিমা ভাঙচুর করা হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে একটি গরু পুড়ে মারা গেছে। নগদ টাকা-পয়সা, স্বর্ণালংকার, কাপড়-চোপড় ও বেশকিছু গরু-ছাগল এবং হাঁস-মুরগী লুটপাট করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার জানান, হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুরের ঘটনায় ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তাদের কাউকে ছাড় দে‌ওয়া হবে না। সবাইকে গ্রেপ্তার করা হবে।

তিনি বলেন, ‘আমিসহ প্রশাসনের সর্বোচ্চ কর্মকর্তারা রাতভর ঘটনাস্থলে অবস্থান করেছি। যারা হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে তারা মানুষ নয়, অমানুষ। আমরা একদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাই অন্যদিকে দুস্কৃতিকারীরা তাদের অপকর্ম চালায়।’

advertisement
advertisement