advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বাংলাদেশ-চীন ফ্লাইট ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
১৯ অক্টোবর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০২১ ১১:১৯ এএম
advertisement

ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ায় কার্যক্রম পরিচালনাকারী এয়ারলাইন্সগুলোকে আগামী চার সপ্তাহ ফ্লাইট পরিচালনা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে চীনের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (সিএএসি)। যদিও এসব ফ্লাইটে ভ্রমণ করা প্রতিটি যাত্রীই ঢাকা থেকে কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদ নিয়েই চীনে গিয়েছিলেন। বর্তমানে ঢাকা-গুয়াংঝু রুটে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স মাসে দুটি ও চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স মাসে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করছে। ফলে আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যত বন্ধ হয়ে গেল বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের আকাশপথে সরাসরি যোগাযোগ।

সিএএসির গত বছরের জুনে জারি করা নির্দেশনা অনুযায়ী, চীনে অবতরণের পর কোনো ফ্লাইটের ৫ জন যাত্রীর মধ্যে কোভিড-১৯ শনাক্ত হলে সেই এয়ারলাইন্সকে শাস্তি হিসেবে এক সপ্তাহের জন্য ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ রাখতে হয়। আর শনাক্তের সংখ্যা যদি ১০ জন বা তার বেশি হয়, তবে ওই এয়ারলাইন্সকে শাস্তি হিসেবে চার সপ্তাহ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেওয়া হয় না। অন্যদিকে এ ধরনের ঘটনা বারবার হলে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য ওই এয়ারলাইন্সটি ফ্লাইট বন্ধের ঝুঁকিতে পড়বে এমন নির্দেশনা জারি রয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে যাত্রী নিয়ে গুয়াংঝু নামার পর কোভিড-১৯ পরীক্ষায় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ও চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স উভয়ের ফ্লাইটের যাত্রীদের মধ্যে ১১ জনের বেশি করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে দুটি এয়ারলাইন্সই চার সপ্তাহের জন্য ফ্লাইট পরিচালনায় নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে। এ কারণে আগামী ২৩ অক্টোবর থেকে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত গুয়াংঝুগামী সব ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। একইভাবে সে সময় পর্যন্ত বন্ধ থাকবে চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটও।

advertisement
advertisement