advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বগুড়ায় সাংবাদিকের পা থেঁতলে দিল দুর্বৃত্তরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া
২০ অক্টোবর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২১ ০২:০২ এএম
advertisement

বগুড়ার শাজাহানপুরে শাহিন আলম (৫০) নামে স্থানীয় এক সংবাদকর্মীকে পিটিয়ে দুই পায়ের হাঁটুর নিচের অংশ থেঁতলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সাংবাদিক শাহিন আলম উপজেলার গোহাইল ইউনিয়নের পালাহার গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলী আকন্দের ছেলে। তিনি বগুড়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিনের শাজাহানপুর উপজেলা প্রতিনিধি। গ্রেপ্তারকৃতরা হলোন- উপজেলার গোহাইল ইউনিয়নের পালাহার গ্রামের আলহাজ বাহার উদ্দিনের ছেলে রফিকুল ইসলাম বাবলু ও তার ছোটভাই শহিদুল ইসলাম দুলু। তাদের গতকাল আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, দেড় মাস আগে উপজেলার পালাহার গ্রামে রাস্তার পাশে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি থেকে সাংবাদিক শাহিন আলমের চাচাতো ভাই আব্দুল মান্নানের বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জন্য তার টানেন বিদ্যুৎকর্মীরা। বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে একই গ্রামের আলহাজ বাহার উদ্দিনের ছেলে রফিকুল ইসলাম বাবলুর ভিটা-জমির ওপর দিয়ে তার টানতে হয়; কিন্তু রফিকুল ইসলাম বাবলু তাতে বাধা দেন। একপর্যায়ে বৈদ্যুতিক তার কেটে বাড়িতে রেখে দেন রফিকুল ইসলাম বাবলু।

পরে পুলিশ গিয়ে ওই তার উদ্ধার করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এর জের ধরে রফিকুল ইসলাম বাবলু ও তার ছোটভাই শহিদুল ইসলাম দুলু সাংবাদিক শাহিন আলমকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। সোমবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শাহিন আলম আতাইল বাজারে চা পান করতে গেলে ওঁৎ পেতে থাকা রফিকুল ইসলাম বাবলু ও শহিদুল ইসলাম দুলুসহ ৬ জন অতর্কিত হামলা করেন। তারা বেদম পিটিয়ে শাহিন আলমের দুই পায়ের হাঁটুর নিচের অংশ থেঁতলে দেন এবং এক হাতের আঙুল ভেঙে ফেলেন। গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা শাহিন আলমকে নন্দীগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় শাহিন আলমের ছোটভাই শাজাহানপুর থানায় মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ রাতেই আসামি রফিকুল ইসলাম বাবলু ও শহিদুল ইসলাম দুলুকে গ্রেপ্তার করে।

advertisement
advertisement