advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

পীরগঞ্জে সহিংসতার ঘটনায় আরও ১১ জন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৪৩ পিএম | আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২১ ১২:৫৪ এএম
ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে পীরগঞ্জে হিন্দুদের ঘরবাড়ি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। পুরোনো ছবি
advertisement

রংপুরের পীরগঞ্জে হামলা, ভাঙচুর ও আগুন দেওয়ার ঘটনায় আরও ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র। এ ঘটনায় দায়ের করা তিনটি মামলায় ৫৩ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হলো।

গতকাল গ্রেপ্তার ১১ জনের মধ্যে দুই তরুণকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তারা হলেন- মাঝিপাড়া বড়করিমপুর এলাকার পাশের বড় মজিদপুর গ্রামের উজ্জ্বল হাসান (২১)। তিনি বেঙ্গল দরজি প্রশিক্ষণ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের হয়ে সেলাই প্রশিক্ষণ দেন। অন্যজন পীরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কিশোরগাড়ি গ্রামের আল আমিন (২২)। তাদের বিরুদ্ধে হিন্দু পাড়ায় হামলার আগে জনতাকে উত্তেজিত করার অভিযোগ আনা হয়। এ ছাড়া বাকি নয়জনকে বাড়িঘরে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটের মামলায় গ্রেপ্তার করা দেখানো হয়।

পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র জানান, ৪০ দিন আগে ফেসবুকে ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করা নিয়ে উজ্জ্বল হাসানের সঙ্গে মাঝিপাড়া এলাকার পরিতোষ সরকারের ফেসবুকে তর্কবিতর্ক হয়। পরিতোষের দেওয়া আপত্তিকর পোস্টের স্ক্রিনশট বিভিন্নজনের কাছে পাঠিয়ে তাদের উত্তেজিত করা হয়। একপর্যায়ে হিন্দুধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে হামলা ও সহিংসতা ঘটানো হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, তিনটি মামলার মধ্যে দুটি মামলার বাদী পীরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইসমাইল হোসেন। এর মধ্যে একটি মামলা হয়েছে হিন্দুদের বাড়িঘরে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটের ঘটনায়। নতুন ১১ জন গ্রেপ্তারসহ এ মামলায় আসামি হলো ৫২ জন। অন্য দুটি মামলা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে।

advertisement
advertisement