advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

কোচিং প্যানেল নিয়ে ক্ষোভ মাশরাফীর, যা বললেন

স্পোর্টস ডেস্ক
২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৪:৩২ পিএম | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৭:৩৪ পিএম
মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।
advertisement

বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের বর্তমান কোচিং প্যানেল নিয়ে সন্তুষ্ট নন সাবেক সফলতম অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। গত মাসের শুরু থেকেই টিম ম্যানেজমেন্ট ও কোচিং প্যানেল নিয়ে নিজের অসন্তোষের কথা জানিয়ে আসছেন তিনি। এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চার ম্যাচের দুটিতে জিততে জিততে হেরে যাওয়ার পর আবারও সেই কোচিং প্যানেল ও টিম ম্যানেজমেন্টের দিকে আঙুল তুললেন তিনি।

নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া একটি পোস্টে টিম ম্যানেজমেন্টকে রিহ্যাব সেন্টারের সঙ্গে তুলনা করেন তিনি। এ সময় দক্ষিণ আফ্রিকান কোচদের সমালোচনাও করেন মাশরাফী।

তিনি লিখেছেন, ‘এখন টিম ম্যানেজমেন্ট দেখলে মনে হয় একটা রিহ্যাব সেন্টার। যেখানে সাউথ আফ্রিকার সব চাকরি না পাওয়া কোচগুলো একসঙ্গে আমাদের রিহ্যাব সেন্টারে চাকরি করছে। এদের বাদ দেওয়া আরও বিপদ কারণ চুক্তির পুরো টাকাটা নিয়ে চলে যাবে। তাহলে দাঁড়ালো কি? তারা যতদিন থাকবে আর মন যা চাইবে তাই করবে।’

‘হেড কোচ এক এক করে নিজ দেশের সবাইকে আনছে এরপর যারা অস্থায়ীভাবে আছে তাদেরও সরাবে আর নিজের মতো করে ম্যানেজমেন্ট সাজাবে। তাও মেনে নিলাম কিন্তু রাসেল (হেড কোচ) ম্যানেজমেন্টের জন্য যেভাবে স্টেপআপ করে, মূল দলের জন্য তাহলে লুকিয়ে কেন। কেন তামিম, মুশফিক, রিয়াদ ভালো থাকে না। এটা ঠিক করা কি তার কাজ না? প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন তিনি।

মাশরাফী লিখেছেন, ‘ম্যাচের একদিন পার হয়ে গেল কতো কথ শুনলাম যার অনেক কিছুরই যুক্তি আছে। কারণ দল হেরে গেলে মানুষ তার প্রতিক্রিয়া নিজের মতো করে দেবে এটা স্বাভাবিক। আমার মনেও অনেক কিছুই এসেছে। তবে দুইটা জিনিস খুব বেশি মনে হচ্ছে। ম্যাচটা হারার জন্য কি শুধুই রিয়াদ আর লিটনই দায়ী? আর কোনো বিষয় কি নেই?’

মাশরাফীর মতে, ‘ম্যাচের আগে উইকেট অ্যাসেস শুধু ক্যাপ্টেন করে না, পুরো টিম ম্যানেজমেন্ট সাথে থাকে। তাহলে টিম করার সময় চিন্তা করেছে উইকেট স্লো হবে যার কারণে তাসকিনকে বসিয়ে নাসুমকে খেলানো। কিন্তু নাসুমকে পাওয়ার প্লের পর বোলিং করানো হলো না। কারণ দুজন বাহাতি ব্যাটসম্যান উইকেটে। তাহলে আগেই চিন্তা করা উচিত ছিল শ্রীলঙ্কার টপঅর্ডারে বাহাতি ব্যাটসম্যান বেশি। তার ওপর মাঠের একপাশে মাত্র ৫৬ গজ (সীমানা)। যখন নাসুমকে নেওয়া হয়েছে তাহলে ব্রেকের সময় কোচ রিয়াদকে কি বলেছে, যে নাসুম দলের মূল বোলার, ওকে ব্যাক করো। কারণ ওই নাসুমই ব্রেকটা পরে দিয়েছে। ততক্ষণে ম্যাচ প্রায় শেষ। তাহলে ওই সময় কোচ কি বসে বসে কোন প্ল্যান না করে শুধু খেলা দেখেছে। আবারও বলছি সিদ্ধান্ত রিয়াদ নেবে কিন্তু ওকে তো হেল্প করতে হবে। কারণ মাঠে ক্যাপ্টেন কখনও কখনও অসহায় হয়ে পড়ে। আর ঠিক তখনই টিম ম্যানেজমেন্টকে টেক অফ করতে হয়। অন্যান্য দলে তো তাই দেখি।’

জাতীয় দলে নিজের শেষ সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফী বলেছিলেন, ‘আমি আমার ক্যাপ্টেনসির শেষ প্রেস কনফারেন্সে বলেছিলাম, এই দলের কোচ যেই হোক না কেন এখন এই দলের রেজাল্ট করার সময়, এক্সপেরিমেন্টের না। কোচের চাহিদা মেটানোর আগে আমাদের দেশের স্বার্থ আগে দেখতে হবে। কারণ ক্রিকেট দেশের মানুষের কাছে এখন স্রেফ খেলা নাই রীতিমতো আবেগে পরিণত হয়েছে।’

advertisement
advertisement