advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ সামরিক পদক পেলেন সেই পাইলট

অনলাইন ডেস্ক
২২ নভেম্বর ২০২১ ১১:১৬ পিএম | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২১ ১১:১৬ পিএম
ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলট অভিনন্দন বর্তমানের হাতে পদক তুলে দেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ- ছবি : পিটিআই
advertisement

ভারতের বিমান বাহিনীর পাইলট অভিনন্দন বর্তমান দেশটির তৃতীয় সর্বোচ্চ সামরিক পদক ‘বীর চক্র’-এ ভূষিত হয়েছেন। আজ সোমবার দেশটির রাষ্ট্রপতি ভবনে এক অনুষ্ঠানে অভিনন্দনের হাতে পদক তুলে দেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এ সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং উপস্থিত ছিলেন। হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যুদ্ধক্ষেত্রে সাহসিকতার জন্য ‘বীর চক্র’ পদক দেওয়া হয়। এই ক্যাটাগরির দ্বিতীয় পদক ‘মহাবীর চক্র’ ও প্রথমটি হলো ‘পরমবীর চক্র’। এর আগে চলতি মাসের শুরুতে অভিনন্দনকে উইং কমান্ডার থেকে গ্রুপ ক্যাপ্টেন পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়।

১৯৯৯ সালে কারগিল যুদ্ধে সাহসিকতার জন্য স্কোয়াড্রন লিডার অজয় আহুজা এবং উইং কমান্ডার একে সিনহার পর অভিনন্দনই প্রথম ভারতীয় বিমান বাহিনী সদস্য যিনি বীর চক্র পদকে ভূষিত হলেন। আহুজা পদকটি মরণোত্তর পেয়েছিলেন।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় দেশটির আধা সামরিক বাহিনীর গাড়িবহরে আত্মঘাতী হামলায় ৪০ জনেরও বেশি নিহত হয়। ওই ঘটনার দায় স্বীকার করে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহাম্মদ।

পুলওয়ামা হামলার জবাব দিতে ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোরে পাকিস্তানের ভেতরে বিমান হামলা চালায় ভারত। সেখানে ভারতীয় বিমান বাহিনীর অভিযানে ৩০০ জঙ্গি নিহত হয় বলে দাবি করে ভারত। দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার মধ্যে ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের একটি এবং পাকিস্তানের পক্ষ থেকে ভারতের দুটি বিমান ভূপাতিত করার দাবি করা হয়।

এরপর প্রথমে ভারতের দুইজন পাইলট এবং তার কয়েক ঘণ্টা পর এক পাইলটকে আটকের কথা জানায় পাকিস্তান সেনাবাহিনী। পরে এক ভিডিওতে পাইলট অভিনন্দনকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখা যায়। ওই ঘটনাটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ব্যাপক প্রচার হয়। পরে ওই বছরের ১ মার্চ অভিনন্দনকে মুক্তি দেয় পাকিস্তান।

advertisement
advertisement