advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

সরকার চায় না খালেদা জিয়া বেঁচে থাকুক -মির্জা ফখরুল ইসলাম

সরকার বিদেশে চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করছে

২৫ নভেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম
আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২০২১ ০২:৩৮ এএম
advertisement

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সরকার বিদেশে চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দেশের মানুষ বিশ্বাস করেÑ সরকারের ইচ্ছে নেই খালেদা জিয়া বেঁচে থাকুক। এ কারণেই তাকে বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে না।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের এক যৌথসভা শেষে গতকাল বুধবার সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নিতে আইনে কোনো বাধা নেই উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এ মুহূর্তে সরকার তাকে বিদেশে পাঠাতে পারে। এটি সরকারের এখতিয়ার। কারাগারে চিকিৎসা না দিয়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে মৃত্যুর দিকে তাকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল। গণতন্ত্র ধ্বংস ও বিরাজনীতিকরণের উদ্দেশ্যেই খালেদা জিয়াকে সরকার বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিচ্ছে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, একটি ফ্যাসিস্ট সরকারের অধীনে সীমিত পরিসরের মধ্যে গণতান্ত্রিকভাবে যত আন্দোলন করা প্রয়োজন আমরা শুরু করেছি। আমরা বিশ্বাস করি জনগণের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশনেত্রীকে মুক্ত ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করব। একই সঙ্গে গণতন্ত্রকেও আমরা মুক্ত করব।

যৌথসভায় অংশ নেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহদপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ, মনির হোসেনসহ দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকরা।

গুজব ছড়াচ্ছে কোন মহল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিষয়ে বিভিন্ন গুজব রটছে- এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এই গুজবগুলোর কোনো ভিত্তি নেই। আমার মনে হয়, এটি অত্যন্ত কৌশলে কোনো মহল ছড়াচ্ছে। অসৎ উদ্দেশ্যে।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, উনি এখন ওই অবস্থাতেই আছেন। স্টিল ভেরি ক্রিটিক্যাল। ডাক্তার সাহেবরা মনিটরিং করছেন, তাদের পক্ষে যেটি সম্ভব সেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এখন যে অবস্থায় আছেন, তাকে সরকার এ মুহূর্তেই বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠাতে পারে।

আট দিনের কর্মসূচি

মির্জা ফখরুল জানান, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে ৩০ নভেম্বর বিভাগীয় সদরে সমাবেশ করবে বিএনপি। ২৫ নভেম্বর যুবদল, ২৮ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক দল, ১ ডিসেম্বর ছাত্রদল, ৩ ডিসেম্বর কৃষক দল ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে। মুক্তিযোদ্ধা দল ২ ডিসেম্বর সারাদেশে মানববন্ধন করবে। ৪ ডিসেম্বর মহিলা দল সারাদেশে মৌন মিছিল করবে। ২৬ নভেম্বর বাদ জুমা মসজিদে মসজিদে দোয়া এবং অন্যান্য ধর্মীয় উপসনালয়ে প্রার্থনা করা হবে। #নিজস্ব প্রতিবেদক

advertisement
advertisement