advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

হাঁসের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার
৪ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৪ ডিসেম্বর ২০২১ ০৩:০৫ এএম
advertisement

সাভারের আশুলিয়ায় বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ২৫০টি হাঁস মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। গতকাল আশুলিয়ার দরগারপাড় এলাকায় রাশেদ ভূঁইয়ার খামারে এ ঘটনা ঘটে।

জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরেই হাঁসগুলোকে মেরে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ খামারি রাশেদ ভূঁইয়ার। মারধর করা হয়েছে খামারের ম্যানেজারকেও। এতে চার লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি খামারির।

খামারের মালিক রাশেদ ভূঁইয়া জানান, তার চাচাতো ভাইয়ের লিজ নেওয়া জায়গায় এক বছর আগে শখ করে হাঁসের খামার গড়ে তোলেন তিনি। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিদেশি প্রজাতির ১০০টি বেলজিয়াম ও ১৫০টি খাকি ক্যাম্বোল প্রজাতির হাঁসের বাচ্চা সংগ্রহ করে খামার করেন। হাসগুলো দেখাশোনা করার জন্য একজন ম্যানেজারও রাখেন।

সকালে ম্যানেজার তাকে ফোন করে জানায় জাহাঙ্গীর, ফারুক ও বশিরসহ অজ্ঞাতনামা দুই তিনজন মিলে তার কাছে শেডের চাবি চায়। চাবি না

দিলে তাকে মারধর করার একপর্যায়ে জীবন রক্ষার্থে সে পালিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর এসে দেখেন হাঁসগুলো লাফিয়ে লাফিয়ে মরে যাচ্ছে।

খামারের মালিক রাশেদ আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই জাহাঙ্গীরের সঙ্গে জমি নিয়ে তার বিরোধ চলছে। গতকালও জাহাঙ্গীর খামারে দুজন লোক পাঠিয়ে ১০টা হাঁস চেয়েছিল খাওয়ার জন্য। এতে রাজি না হওয়ায় হুমকি দিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়। এরই জেরে তার হাঁসগুলো মেরে ফেলা হয়েছে।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আসওয়াদুর রহমান বলেন, রাশেদ ভূঁইয়া নামে এক ব্যক্তিকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগে থানায় জিডি হয়েছে। তবে হাঁস মারা যাওয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাভার উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগী থানায় অভিযোগ করার পর বিষয়টি আমরা দেখব। মরে যাওয়া হাঁস পুলিশের মাধ্যমে পাঠানো হবে ফরেনসিতে। পরে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।