advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মধ্যরাতে রাবি শিক্ষার্থীকে শিবির আখ্যা দিয়ে ছাত্রলীগের মারধর

রাবি প্রতিনিধি
১৫ জানুয়ারি ২০২২ ১১:৫৭ এএম | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০২২ ০২:১৬ পিএম
পুরোনো ছবি
advertisement

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাশেদুল ইসলামকে শিবির আখ্যা দিয়ে মারধর করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জিয়াউর রহমান হলের প্রথম ব্লকের ৪র্থ তলায় এ ঘটনা ঘটে।

মারধরে অভিযুক্তরা হলেন- কলা অনুষদ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ হাসান জয় এবং ছাত্রলীগ কর্মী বুলবুল মাহমুদ। উভয়েই ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। তারা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর অনুসারী বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী ও হল সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে অভিযুক্তরা জিয়াউর রহমান হলে রাশেদের ৪১৪ নম্বর কক্ষে যান। এ সময় ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ফেসবুক গ্রুপের এডমিন হওয়া নিয়ে রাশেদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ায় অভিযুক্তরা। একপর্যায়ে অভিযুক্তরা রাশেদকে কিল-ঘুষি দিয়ে আঘাত করা শুরু করে। অভিযুক্তরা এ সময় হবিবুর রহমান হলের ছাত্রলীগের দায়িত্বে থাকা মমিনুল ইসলামকে ‘হলে শিবির ধরা পড়েছে, আপনারা আসেন’ বলে ফোন করেন।

ঘটনার বিষয়ে অভিযুক্ত বুলবুল মাহমুদ বলেন, ‘এটা আমাদের বিভাগের বিষয় নিয়ে একটা ঝামেলা। মারামারির কিছুই হয়নি। মূলত নাহিদ আর রাশেদের মধ্যে ঝামেলা। ’

অন্য অভিযুক্ত নাহিদ হাসান জয় বলেন, ‘বন্ধুদের মধ্যে একটু খুনসুটি হয়েছে। মারধরের ঘটনা ঘটেনি। রান্নার আয়োজন নিয়ে একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।’

জানতে চাইলে রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘বিষয়টা আমি জেনেছি। খোঁজ-খবর নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ বিষয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ড. সুজন সেন বলেন, ‘আমি বিষয়টি মাত্রই জানতে পেরেছি। শুনেছি এখন পরিস্থিতি স্থিতিশীল। দ্রুতই সবার সঙ্গে বসে বিষয়টির সমাধান করবো।’

advertisement
advertisement