advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

চোর সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩ 

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি
১৫ জানুয়ারি ২০২২ ০৫:৫৪ পিএম | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০২২ ০৫:৫৪ পিএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

সৈয়দপুরে চোর সন্দেহে অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হত্যার পর লাশ গুম করে রাখা হয়। পরে পুলিশ প্রায় ১০ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার ফতেজংপুর ইউনিয়নের ঠাকুরেরহাট সংলগ্ন ডালিয়া ক্যানেল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। এদিকে গ্রেপ্তার আতঙ্কে ওই এলাকা পুরুষ শুন্য হয়ে পড়েছে।

খোঁজ নিয়ে আরও জানা গেছে, ওই গ্রামের মো. হোসেন আলীর বাড়িতে অজ্ঞাতনামা চোর প্রবেশ করলে বাড়ির লোকজন টের পেয়ে তাকে আটক করে। এরপর তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে চোরকে বেধড়ক গণপিটুনি দিলে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এ সময় হোমিও পল্লী চিকিৎসক মো. আনসার আলী তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে রাতারাতি লাশ গুম করে রাখা হয়।

আজ শনিবার ভোরে খবর পেয়ে সৈয়দপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. সারোআর আলম ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবুল হাসনাত খান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির মালিক হোসেন আলী ও তার বড় ছেলে তারিকুল ইসলাম পালিয়ে যায়। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার অদূরে ওই ক্যানেলে পানির নিচে কচুরিপানা দিয়ে ঢাকাবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় হোসেন আলীর স্ত্রী তাহেরা বেগম ও ছোট ছেলে খায়রুল ইসলাম এবং একই এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে মোখলেছুর রহমান মোখলেছকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুব্রত কুমার সরকার লাশ উদ্ধারের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

advertisement
advertisement