advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শিল্পীদের নির্বাচন অনিশ্চিত

সংক্রমণ রোধে নতুন বিধিনিষেধ

বিনোদন সময় প্রতিবেদক
২২ জানুয়ারি ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০২২ ১১:২২ পিএম
advertisement

করোনার সংক্রমণ দ্রুত বাড়তে থাকায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। গতকাল ৫টি জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এর মধ্যে একটি হচ্ছে রাষ্ট্রীয়, সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান-সমাবেশের ওপর বিধিনিষেধ। বিধিনিষেধ মোতাবেক এসব অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি মানুষের সমাবেশ করা যাবে না। আবার যারা অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন, তাদের অবশ্যই করোনার সনদ অথবা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করা পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। কিন্তু শোবিজে বইছে নির্বাচনের হাওয়া। আগামী ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন। একইদিনে হবে ছোটপর্দার অভিনয়শিল্পীদের সংগঠন টেলিভিশন অভিনয়শিল্পী সংঘের নির্বাচনও। এর মধ্যে বাড়ছে করোনা শনাক্তের হার। দেওয়া হয়েছে নতুন করে বিধিনিষেধ। এমন পরিস্থিতিতে নির্বাচন হবে কী হবে না- তা নিয়ে নতুন করে দেখা দিয়েছে শঙ্কা। এবারের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের সভাপতি প্রার্থী জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি বলেন, ‘নতুন করে বিধিনিষেধ দিয়েছে সরকার। স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা কী করব সেটা নিয়ে এখন পর্যন্ত (গতকাল বিকাল) কোনো আলোচনা হয়নি। তবে সবাইকে বলেছি সাবধানে থাকতে। যদি কেউ টিকা না নিয়ে থাকে তাদের বলছি টিকা নিতে।’ আরেক সভাপতি প্রার্থী মিশা সওদাগর বলেন, ‘করোনা বাড়ছে, সরকার নতুন বিধিনিষেধ দিয়েছে। সামনে আমাদের নির্বাচন। টিকার বিষয়টি আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি। আর লোক সমাগম কম করার চেষ্টা করছি।’

করোনা সংক্রমণের এ সময়ে ছোটপর্দার অভিনয়শিল্পীদের সংগঠন অভিনয়শিল্পী সংঘের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কিনা- তা নিয়েও শঙ্কায় আছেন শিল্পীদের অনেকেই। বিষয়টি নিয়ে কথা হয় বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিমের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আমরা প্রতিনিয়ত পর্যবেক্ষণ করে যাচ্ছি। নির্বাচন বন্ধ করতে হবে- এ বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো আমাদের কিছু জানানো হয়নি। নির্বাচন হবে, এ লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আর পরিস্থিতি খারাপ হলে তো আমাদের কিছু করার থাকবে না।’