advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তামিমের আক্ষেপ

ক্রীড়া ডেস্ক
২৬ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৬ জুন ২০২২ ০১:০৬ এএম
advertisement

সেন্ট লুসিয়ায় দারুণ শুরু করেছিলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু ৪৬ রানে থামেন তিনি। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনের খেলা শেষে আক্ষেপ ছিল তার কণ্ঠে। ৬৭ বলে ওয়ানডের মতো খেলছিলেন। আলজারি জোসেফের হঠাৎ লাফিয়ে ওঠা বলে ক্যাচ দেন পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা ব্ল্যাকউডের কাছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টানা তিন ইনিংসেই ভালো শুরু পেয়েছেন তামিম। অভিজ্ঞ এ ওপেনার কোনো ইনিংসই বড় করতে পারেননি। অ্যান্টিগায় দুই ইনিংসে যথাক্রমে ২৯ ও ২২ রান করেছেন। শুক্রবার সেন্ট লুসিয়ায় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টেও রান পেয়েছেন তামিম। কিন্তু তার রানটা দলকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যেতে পারেনি। কারণ সম্ভাবনা জাগিয়েও রানটা বড় করতে ব্যর্থ তিনি।

advertisement 3

মাহমুদুল হাসান জয়কে নিয়ে ড্যারেন স্যামি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দলকে শুরুর ধাক্কা থেকে বাঁচিয়েছেন তামিম। বাংলাদেশের ওপেনিং জুটি বিচ্ছিন্ন হয়েছিল ১৩তম ওভারে। জয় ফিরলেও তামিম একপ্রান্ত ধরে স্বাগতিক ফাস্ট বোলারদের চাপে রাখার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু ইনিংসের ২৩তম ওভারে বাঁহাতি এ ওপেনারের ধৈর্যচ্যুতি ঘটে।

advertisement 4

করে বসেন বড় ভুল। আলজারি জোসেফের বলে পয়েন্টে ক্যাচ দেন। ৪ রানের জন্য হাফ সেঞ্চুরি মিস করেন তামিম। ৯টি চারে ৪৬ রান করেন তিনি। দিনশেষে ইনিংসটা বড় করতে না পারার আক্ষেপ ধরা পড়ল তামিমের কণ্ঠে। প্রথম দিনশেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এমন শুরু পেলে সচরাচর আমার ইনিংসগুলো বড় হয়। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আজকে তা পারিনি।’ আলজারি জোসেফের বলটা জায়গায় দাঁড়িয়ে ব্যাট চালিয়েছেন তামিম। ছিল না কোনো ফুটওয়ার্ক। অফ স্টাম্পের বাইরের বল ছিল। বল তার ব্যাটে লেগে পয়েন্টে ফিল্ডারের হাতে জমা পড়ে। এ জন্য নিজের ওপরই দায় নিচ্ছেন তামিম। ইনিংসটা টেনে নেওয়া উচিত ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আজকে বলটা হয়তোবা আমি ছেড়ে দিতে পারতাম কিন্তু বলটা যতটুকু ওঠার কথা ছিল না, ততটুকু উঠেছে। এ কারণে আমার ব্যাটের স্টিকারে লাগে।’

দেশসেরা এই ওপেনার বলেন, আমি এমন একজন যে, এখানে এসে বলব না এ কারণে হয়নি ও কারণে হয়নি। আমার কাছে মনে হয় এমন শুরু পেয়ে সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে দলকে টেনে নেওয়া উচিত ছিল। তাই আমার কোনো অজুহাত নেই।’

ব্যাটারদের ব্যর্থতায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেন্ট লুসিয়া টেস্টের প্রথম দিন ২৩৪ রানেই অলআউট হয়েছে সফরকারী বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন লিটন দাস। জবাবে ১৬ ওভার ব্যাট করে বিনা উইকেটে ৬৭ রান করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ (পরশু)। ১০ উইকেট হাতে নিয়ে এখনো ১৬৭ রানে পিছিয়ে ক্যারিবীয়রা। কাল ছিল দ্বিতীয় টেস্টের খেলা। এ রিপোর্ট লেখার সময় ১ উইকেটে ১০৪ রান তুলেছে। ড্যারেন স্যামি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। দুটি পরিবর্তন নিয়ে একাদশ সাজায় বাংলাদেশ। সাবেক অধিনায়ক মুমিনুল হক ও মোস্তাফিজুর রহমানের পরিবর্তে একাদশে সুযোগ হয় ব্যাটার এনামুল হক বিজয় ও পেসার শরিফুল ইসলামের। সাত বছর ৯ মাস পর টেস্ট খেলার সুযোগ পেয়েছেন বিজয়। একাদশে জায়গা পেয়েই রেকর্ড গড়েছেন বিজয়। বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে দীর্ঘ বিরতির পর টেস্ট খেলার রেকর্ড গড়েন তিনি। সর্বশেষ ম্যাচের পর সাত বছর ৯ মাস ১১ দিন পর টেস্ট খেলতে নামেন তিনি। এর আগে ২০০৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর অভিষেক হওয়ার সাত বছর পর নিজের দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নেমেছিলেন পেসার নাজমুল হোসেন। বাংলাদেশের ইনিংসে শান্ত ২৬, এনামুল হক ২৩, লিটন ৫৩, শরিফুল ২৬ ও এবাদত ২১ রান করেন।

এবাদত ও শরিফুল নবম উইকেটে ৩৬ রানের জুটি উপহার দেয়।

advertisement